স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে নাগরিক শক্তির নেতৃত্বে অগ্রযাত্রা [March 27, 2014 পর্যন্ত]

 

  • তরুণদের মাঝে রাজনৈতিক সচেতনতা সৃষ্টি এবং স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে ঐক্যবদ্ধ করা
  • সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিময় দেশ গড়া 
  • হরতাল সহিংসতামুক্ত দেশ
  • জঙ্গিবাদ ও চরমপন্থা মুক্ত দেশ
  • দেশের সম্মান সম্পদ রক্ষা 
  • নারী অধিকার প্রতিষ্ঠা 
  • শাহবাগে আন্দোলনরত তরুণ এবং মাদ্রাসা ছাত্রদের মাঝে দূরত্ব দূরীকরণ  
  • বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার দাবিতে আন্দোলন 
  • বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে সন্ত্রাসী কার্যক্রমের বিরুদ্ধে অবস্থান 
  • ছাত্র রাজনীতিতে সুস্থ ধারা ফিরিয়ে আনতে ভূমিকা  


তরুণদের মাঝে রাজনৈতিক সচেতনতা সৃষ্টি এবং স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে ঐক্যবদ্ধ করা
 

রাজনীতি নিয়ে তরুণদের মাঝে যে অনীহা ছিল, হতাশা ছিল, নাগরিক শক্তির প্রচেষ্টায় আমরা তা কাটিয়ে উঠতে সক্ষম হয়েছি। আমরা কয়েক মাস আগেও দেখতাম, তরুণরা ফেইসবুকে “Political Views” এ লিখে রাখছে, “I hate politics” (“রাজনীতি ঘৃণা করি”)। “রাজনীতিবিদ” ভাবলেই তরুণরা ভাবত দুর্নীতিপরায়ণ বা সন্ত্রাসীদের গডফাদারদের কেউ। গণজাগরণ মঞ্চের আন্দোলনে প্রথম যখন রাজনীতিবিদরা যোগ দিতে যান, তখন তাদের কথা বলতে দেওয়া হয়নি। তরুণদের সামনে সুস্থ ধারার রাজনীতি করেন এমন কোন রোল মডেল ছিল না। কিন্তু ২০১৩ সালের অক্টোবর থেকে শুরু করে মাত্র কয়েকমাসে আমরা লক্ষ লক্ষ তরুণের মানসিকতায় ব্যাপক পরিবর্তন লক্ষ্য করছি। তরুণরা এখন সুখী সমৃদ্ধ স্বপ্নের বাংলাদেশ নিয়ে, উন্নত “innovative” রাজনীতি নিয়ে স্বপ্ন দেখছে। আমাদের আধুনিক তরুণরা এখন রাজনীতিতে আসতে চাইছে, রাজনীতিতে পরিবর্তন আনতে চাইছে। মানবতাবিরধী অপরাধীদের বিচার নিয়ে ২০১৩ সালে আমরা দেখেছি, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তরুণরা দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে পরস্পরকে আক্রমণ করছে এবং নিজেদের পক্ষে দল ভারি করার চেষ্টা করছে। কিন্তু গত কয়েকমাসে আমরা লক্ষ্য করছি, তরুণরা সব ভেদাভেদ ভুলে দেশের জন্য কাজ করতে চাইছে। 

 

 

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিময় দেশ গড়া 

নাগরিক শক্তি বাংলাদেশকে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিতে পূর্ণ এবং সবকিছুর উপর মানবতার অবস্থান দেখতে চায়। এ লক্ষ্যে সকল সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে নাগরিক শক্তি দৃঢ় অবস্থান নিয়েছে এবং জাতীয় ও আন্তর্জাতিক জনমত গঠনে কাজ করছে। আমরা বিশ্বাস করি, বাংলাদেশের মানুষ সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসকে ঘৃণা করবে এবং বাংলাদেশে আর কখনও সাম্প্রদায়িক হামলা হবে না। 

  



হরতাল সহিংসতা মুক্ত দেশ 

নাগরিক শক্তি সবসময়ই মানুষকে জোর করে হরতাল পালনে বাধ্য করার বিপক্ষে। হরতাল-অবরোধ সহিংসতা জানমালের ক্ষতির বিরুদ্ধে দৃঢ় অবস্থান নিয়ে, জনসচেতনতা তৈরি করে বিএনপির মত দল, যে দলটি বিরোধী দলে থাকলে কথায় কথায় হরতাল ডাকে, যাদের জোটে বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম বেসরকারি সশস্ত্র সংগঠন ছাত্রশিবির আছে, তাদের হরতাল-সহিংসতা থেকে দূরে রেখে দলকে সাংগঠনিক ভাবে শক্তিশালী করতে মনোযোগী হতে আনুপ্রানিত করেছে। হরতাল-সহিংসতা নয় বরং জনগণকে সম্পৃক্ত করে আন্দোলন করলেই আন্দোলন ফলপ্রসূ হয় – এই সত্য আমরা প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছি। গত ৩ মাসে আমরা দেশে হরতাল দেখিনি।

 

 

জঙ্গিবাদ ও চরমপন্থা মুক্ত দেশ 

নাগরিক শক্তি বাংলাদেশকে জঙ্গিবাদ মুক্ত করতে কঠোর অবস্থানের পাশাপাশি ইসলাম ধর্মের সঠিক ব্যাখ্যা প্রদানকে উৎসাহিত করে।


দশ ট্রাক অস্ত্র মামলার রায় ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়ে নাগরিক শক্তি সকল 
চরমপন্থার বিরুদ্ধে দৃঢ় অবস্থান ব্যক্ত করেছে। 



দেশের সম্মান সম্পদ রক্ষা 


বিদেশী শক্তির সমর্থন লাভের লক্ষ্যে সরকার দেশের স্বার্থ জলাঞ্জলি দিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের টেস্ট মর্যাদা বিসর্জন দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিল। নাগরিক শক্তি গনসচেতনতা সৃষ্টি করে বাংলাদেশ ক্রিকেটকে তার মর্যাদা হারিয়ে ফেলার সম্ভাবনা থেকে রক্ষা করেছে।


দেশের স্বার্থ বিরোধী রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে।

নারী অধিকার প্রতিষ্ঠা 

নাগরিক শক্তি নারীর প্রাপ্য অধিকার প্রতিষ্ঠায় দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

 

গ্রামীণ নারীদের ব্যাংক সরকারের কেড়ে নেওয়ার অপচক্রান্তের বিরুদ্ধে অবস্থান নাগরিক শক্তি স্পষ্ট করেছে। দেশবাসীর মাঝে সচেতনতা সৃষ্টি এবং গ্রামীণ নারীদের তথা গ্রামীণ ব্যাংকের ৮৪ লক্ষাধিক গ্রাহককে এই ইস্যুতে ঐক্যবদ্ধ করেছে।

শাহবাগে আন্দোলনরত তরুণ এবং মাদ্রাসা ছাত্রদের মাঝে দূরত্ব দূরীকরণ 


শাহবাগে আন্দোলনরত তরুণ এবং মাদ্রাসা ছাত্রদের মাঝে পারস্পরিক ভুল বোঝাবুঝির কারণে যে দূরত্ব তৈরি হয়েছিল – নাগরিক শক্তির নেতৃত্বে সেই দূরত্ব মুছে গেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার দাবিতে আন্দোলন 

শ্রদ্ধেয় ডঃ মুহম্মদ জাফর ইকবালের পদত্যাগপত্র প্রত্যাহার এবং বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার দাবির আন্দোলনে নাগরিক শক্তি জনগণকে নেতৃত্ব দিয়েছে।

 
বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে সন্ত্রাসী কার্যক্রমের বিরুদ্ধে অবস্থান  
 
বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ছাত্রশিবির এবং ছাত্রলীগের সন্ত্রাসী কার্যক্রমের বিরুদ্ধে নাগরিক শক্তি দৃঢ় অবস্থান নিয়েছে।    

 
ছাত্র রাজনীতিতে সুস্থ ধারা ফিরিয়ে আনতে

নাগরিক শক্তি দেশের ছাত্র রাজনীতিতে সুস্থ ধারা ফিরিয়ে আনতে চায়। দেশের আধুনিক তরুণ প্রজন্মের মাঝে নাগরিক শক্তির জনপ্রিয়তা প্রচলিত ছাত্র সংগঠনগুলোকে সুস্থ রাজনীতি প্রচলন করতে অনুপ্রাণিত করছে।

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s