"মাদকমুক্ত বাংলাদেশ" গড়ার পথে অগ্রযাত্রা – ২

“মাদকমুক্ত বাংলাদেশ” গড়ার পথে এই কয়েকদিনে আমরা আরও অনেকটা এগিয়েছি।


“টেকনাফ সীমান্তে ইয়াবা সিন্ডিকেটে অভিযানের পর গোটা এলাকার দৃশ্যপট পাল্টে গেছে। এর ধাক্কা এসে লেগেছে স্থানীয় বাজারেও। নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দরপতন শুরু হয়েছে। ইয়াবার ‘তরতাজা টাকায়’ সীমান্ত শহরটির হাটবাজার, দোকানপাটে প্রধান ক্রেতা ছিল তারাই। বাজারের মাছ-মাংস থেকে শুরু করে সব কিছুর দাম ছিল আকাশছোঁয়া। এই আকাশছোঁয়া দামের পণ্যের ক্রেতারা অভিযানের ভয়ে লাপাত্তা। মাত্র তিন দিনের ব্যবধানে কেজিপ্রতি ৩০০ টাকার দেশি মুরগি গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে নেমে এসেছে ২০০ টাকায়। হাজার টাকার ইলিশ মাছের দামও নেমে এসেছে অর্ধেকে। এতে সীমান্তের সাধারণ মানুষের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে।
সূত্র – ইয়াবা সাম্রাজ্যে পণ্যমূল্যে ধস নিখোঁজ দুজনের হদিস নেই

রাতারাতি পাল্টে গেছে টেকনাফ সীমান্তের দৃশ্যপট। বৈধ-অবৈধ জমজমাট ব্যবসার চেনা দৃশ্যে আকস্মিক যেন ধস নেমেছে। রাতভর নাফ নদীর তীরের চোরাই নৌঘাটগুলোতে বিজিবি সদস্যদের চোখ ফাঁকি দিয়ে ইয়াবা লেনদেনের নিত্যদিনের সেই দৃশ্যপট চোখে পড়েনি। দামি মোটরসাইকেল নিয়ে ‘ইয়াবা তরুণ’দের ভোর থেকে রাত পর্যন্ত সীমান্ত জনপদজুড়ে ছোটাছুটির দেখাও মিলছে না। যেসব চিহ্নিত ব্যক্তি দিন-রাত ব্যস্ত সময় কাটাতেন মাদক পাচারে সেই ব্যক্তিদেরও দেখা যাচ্ছে না। গত দুদিন ধরে মিয়ানমার থেকে ইয়াবার চালান পাচারও বন্ধ রয়েছে বলে বিজিবি-১৭ ও বিজিবি-৪২ ব্যাটালিয়নের অধিনায়কদ্বয় নিশ্চিত করেছেন।”
সূত্র – কারবারিরা হাওয়া, টেকনাফ থমথমে

মাদক মুক্তির আরও খবর



“মাদকমুক্ত বাংলাদেশ”


“মাদকমুক্ত বাংলাদেশ” গড়ার পথে আমরা অগ্রযাত্রা শুরু করেছি। এখন সমান্তরালভাবে আরেকটা গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব হবে – মাদকসেবীদের পুনর্বাসন – যারা ভুল পথে গিয়েছিলেন, তাদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনা।

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s