আজকের উপলব্ধিতে বাংলাদেশ (১১/৭/১৪)

1.নারী অগ্রগতি, ক্ষমতায়নের মাধ্যমে সামাজিক অগ্রগতি

বাংলাদেশের নারীদের বেশ কিছু পরিসংখ্যান অনন্য।

গ্রামীণ ব্যাংকের ৮৫ লক্ষাধিক গ্রাহকের মাঝে ৯৭% নারী। এই নারীরা ক্ষুদ্রঋণ গ্রহণ করে স্বাবলম্বী হচ্ছেন।
নারীর ক্ষমতায়নে গ্রামীণ, ব্র্যাকসহ এনজিওগুলোর ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের দেশের সরকার জানে সরকারের একার পক্ষে দারিদ্র্য দূরীকরণ সম্ভব নয়। তাই আমাদের সরকার স্বাধীনতার পর থেকেই এনজিওগুলোর বিকাশের সুযোগ করে দিয়েছে।
গত দশকে দেশের শিল্প ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় ঘটনা গার্মেন্টস শিল্পের বিকাশ। গার্মেন্টস কর্মীর সংখ্যা প্রায় ৪০ লক্ষ, যার ৮৫% এর উপর নারী।

শুধু কি দারিদ্র্য দূরীকরণে নারীদের অংশগ্রহণ?

শিক্ষা ক্ষেত্রে চিত্রটা আমরা দেখি।
আমাদের দেশের মেডিক্যাল কলেজগুলোতে প্রায় ৫৫-৬০% ছাত্রী (৪০-৪৫% ছাত্র)।
মেয়েদের জন্য ১০ম শ্রেণী পর্যন্ত অবৈতনিক শিক্ষা এবং ছাত্রীদের জন্য বৃত্তি – নারী শিক্ষার প্রসারে ভূমিকা রেখেছে।

আমাদের রাজনীতি নিয়ে যতই অভিযোগ থাকুক, একটা ব্যাপারে আমাদের রাজনীতি পৃথিবীতে অনন্য – আমাদের প্রধানমন্ত্রী এবং বিরোধী দলীয় নেত্রী দুইজনই নারী।
দেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দুটি স্থান দুইজন নারীর দখলে – এটা নিশ্চয় আমাদের দেশের নারীদের অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করে।

নারী অগ্রগতি, ক্ষমতায়নের মাধ্যমে আমাদের দেশে (অনেকের অলক্ষ্যেই) সামাজিক অগ্রগতি ঘটেছে।
আমরা কি জানি, সামাজিক নানা সূচকে (যেমন শিশু মৃত্যুহার, গড় আয়ু, নারী শিক্ষা, শিশু পুষ্টি, শিশুদের টিকা – ভ্যাক্সিন দেওয়ার হার, ইত্যাদিতে) আমরা প্রতিবেশী ভারত, পাকিস্তানকে ছাড়িয়ে গিয়েছি?

“নারী অগ্রগতি, ক্ষমতায়নের মাধ্যমে সামাজিক অগ্রগতি” – কিভাবে?

শিক্ষিত – স্বাবলম্বী নারীরা ছেলেমেয়ে নেন কম (শিশুর জন্মের সময় কয়েকমাস ছুটি নেওয়া ইত্যাদি কারণে)। ছেলেমেয়ে কম নিলে তাদের প্রত্যেকের সর্বোচ্চ যত্ন নেওয়া সম্ভব হয়।
আবার, পরিবারে মায়েদের ভূমিকা বেশি থাকলে মেয়ে শিশুরা ছেলে শিশুদের সমান অধিকার, যত্ন, শিক্ষার সুযোগ পায়।
শিক্ষিত – স্বাবলম্বী নারীরা শিশুদের যত্ন নেন বেশি। টিকা – ভ্যাক্সিন দেওয়া ইত্যাদি নিশ্চিত হয়। শিশুদের স্বাস্থ্য ভালো থাকে। এসব ব্যাপার পরিসংখ্যানে শিশু মৃত্যু হার কমিয়ে আনে; শিশু পুষ্টি (স্বাস্থ্যবান শিশু) ইত্যাদি সূচকেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

আমাদের দেশে সামাজিক ক্ষেত্রে নারীর ক্ষমতায়নের ভূমিকা দেখে নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন বলেছেন, যে দুটি দেশ থেকে ভারত সবচেয়ে বেশি শিখতে পারে তাদের একটি হল চায়না, অপরটি হল বাংলাদেশ।

রেফরেন্স
নারী অধিকার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে সামাজিক অগ্রগতি: প্রেক্ষাপট বাংলাদেশ (March 6, 2014)

2.লিভিং লেজেন্ড আইয়ুব বাচ্চু (যদিও তিনি প্রয়াত আযম খানকেই বাংলাদেশের একমাত্র “লিভিং লেজেন্ড” বলতেন), বাংলার গায়ক মাহমুদুজ্জামান বাবুদের পাশে পেলে কোনদিন হয়ত মিউসিক কম্পোস করা হবে! অপেক্ষায় রইলাম!
আইয়ুব বাচ্চু কি জানেন “সেই তুমি কেন এত অচেনা হলে” আর “সে তারা ভরা রাতে” “আমাদের দুইজনের” খুব প্রিয়?

3.আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াড থেকে এবার আমাদের তরুণ গণিতবিদরা এ পর্যন্ত সেরা ফলাফল নিয়ে ফিরছে। 
একজন সিলভার মেডেল, একজন ব্রোঞ্জ মেডেল এবং দলীয়ভাবে সর্বমোট ৮৪ পয়েন্ট পেয়েছে (এ পর্যন্ত বাংলাদেশের সর্বোচ্চ)। 
বাংলাদেশ গণিত দলকে অভিনন্দন! 

4.রাবের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত (banglanews24.com)
দেশের আইন শৃঙ্খলা রক্ষায়, দেশ থেকে সমস্ত অন্যায় অপরাধ দূর করতে সৃষ্টিকর্তা আমাদের সহায় হোন।

5.আসছে ১৯ জুলাই শ্রদ্ধেয় লেখক ড. হুমায়ূন আহমেদের ২য় মৃত্যুবার্ষিকী।

কিছুদিন আগে ভাবছিলাম – নাগরিক শক্তি যেদিন আত্নপ্রকাশ করবে সেদিন দুজন মানুষের জন্য কষ্ট হবে – প্রয়াত বিচারপতি হাবিবুর রহমান আর লেখক ড. হুমায়ূন আহমেদ। বেঁচে থাকলে এই দুজন নিশ্চয় সেদিন অসম্ভব খুশি হতেন।
প্রয়াত বিচারপতি হাবিবুর রহমান আর লেখক ড. হুমায়ূন আহমেদ এর জন্য শ্রদ্ধা এবং ভালবাসা।

প্রয়াত লেখক ড. হুমায়ূন আহমেদের অনবদ্য সৃষ্টিগুলোর মাঝে অন্যতম
অসাধারণ তীক্ষ্ণ Abnormal Psychologist মিসির আলি (ড. হুমায়ূন আহমেদ একটি বই – সম্ভবত “আমিই মিসির আলী” – তে উল্লেখ করেছিলেন প্রথম আলোর সম্পাদক শ্রদ্ধেয় মতিউর রহমানকে তাঁর মিসির আলী মনে হয়),
অলৌকিক ক্ষমতাসম্পন্ন হিমু এবং
পৃথিবীর শুদ্ধতম মানুষ শুভ্র।

লেখক ড. হুমায়ূন আহমেদের অসংখ্য প্রিয় বই এর মাঝে দুটি:
হিমু এবং হার্ভার্ড PhD বল্টু ভাই
হলুদ হিমু কালো রাব

প্রয়াত লেখক ড. হুমায়ূন আহমেদ ২০১২ সালে ক্যান্সার চিকিৎসার মাঝে যখন দেশে এসেছিলেন, আমাকে দেখতে চিটাগং এ এসেছিলেন। নিজের অসুস্থতার মাঝেও আমাকে দেখে গিয়েছিলেন।
সৃষ্টিকর্তা কেন উনাকে আর কিছুদিন বাঁচিয়ে রাখলেন না? আমাকে কেন উনাকে দেখতে যাওয়ার সুযোগ দিলেন না?

নাগরিক শক্তি: সংগঠন

ভাইস প্রেসিডেন্ট (Vice President)
১. ড. কামাল হোসেন: গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের প্রণেতা; সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী
২. ড. আকবর আলি খান: অর্থনীতিবিদ; তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা
৩. ব্যারিস্টার রফিক -উল -হক: জ্যেষ্ঠ আইনজীবী, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট; সমাজসেবক
৪. প্রফেসর ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী: তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা; উপাচার্য, ইউনিভার্সিটি অফ এশিয়া প্যাসিফিক; সভাপতি, বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটি
৫. আল্লামা আহমেদ শফি: হেফাজতে ইসলামের আমীর

“নাগরিক শক্তি”র আনুষ্ঠানিক আত্নপ্রকাশ ঘোষণার পর উল্লেখিত ব্যক্তিরা দলের ভাইস প্রেসিডেন্টের সম্মান গ্রহণ করবেন।

সেক্রেটারিয়েট (Secretariat)

কো-জেনারেল সেক্রেটারি (Co-general Secretary)
১. অর্থনীতিবিদ ড. হোসেন জিল্লুর রহমান: তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা
২. অর্থনীতিবিদ প্রফেসর ড. আবুল বারাকাত: মুক্তিযোদ্ধা; ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ও প্রাক্তন চেয়ারম্যান; জনতা ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান; বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সভাপতি।
[অর্থনীতিবিদ ড. হোসেন জিল্লুর রহমান এবং অর্থনীতিবিদ প্রফেসর ড. আবুল বারাকাত “নাগরিক অর্থনীতি ফোরাম”এর আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]

জয়েন্ট জেনারেল সেক্রেটারি (Joint General Secretary)
১. জনাব আতিকুল ইসলাম: সভাপতি, বিজিএমইএ (সিনিয়ার)
[জনাব আতিকুল ইসলাম “নাগরিক শিল্প ব্যবসায়ী শক্তি”র আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]
২. জনাব মাহমুদুর রহমান মান্না: আহ্বায়ক, নাগরিক ঐক্য (সিনিয়ার)
৩. জনাব মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর: মিডিয়া ও উন্নয়নকর্মী
[জনাব মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর “নাগরিক সাংবাদিক শক্তি”র আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]
৪. প্রফেসর ড. আসিফ নজরুল: অধ্যাপক, আইন বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
[প্রফেসর ড. আসিফ নজরুল “নাগরিক আইনজীবী শক্তি”র আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]
৫. প্রফেসর আনু মুহাম্মদ: অর্থনীতিবিদ ও অধ্যাপক, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়
[প্রফেসর আনু মুহাম্মদ “নাগরিক জাতীয় সম্পদ রক্ষা ফোরাম” এর আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]
৬. হাফেজ মুহাম্মদ জুনায়েদ বাবুনগরী: হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব

“নাগরিক শক্তি”র আনুষ্ঠানিক আত্নপ্রকাশ ঘোষণার পর জেনারেল সেক্রেটারি, কো-জেনারেল সেক্রেটারিদ্বয় এবং সিনিয়র জয়েন্ট জেনারেল সেক্রেটারিবৃন্দ নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করবেন।

ন্যাশনাল কাউন্সিল (National Council)

মেম্বারস (Members)
১. ড. এটিএম শামসূল হুদা: সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার; সাবেক সচিব (সিনিয়ার)
২. ড. সা’দত হুসাইন: সাবেক মন্ত্রী পরিষদ সচিব ও পাবলিক সার্ভিস কমিশন (পিএসসি) র সাবেক চেয়ারম্যান (সিনিয়ার)
৩. ড. ফেরদৌস আহমেদ কোরেশী: প্রবীণ রাজনীতিবিদ (সিনিয়ার)
৪. জনাব রফিউর রাব্বি: সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব; সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের আহ্বায়ক
[ন্যাশনাল কাউন্সিলের পাশাপাশি জনাব রফিউর রাব্বি “নারায়ণগঞ্জ জেলা নাগরিক শক্তি”র আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]
৫. প্রফেসর ড. শাহদীন মালিক: আইনজীবী, সুপ্রিম কোর্ট এবং অধ্যাপক, স্কুল অফ ল, ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি
[প্রফেসর ড. শাহদীন মালিক “নাগরিক আইনজীবী শক্তি”র আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]
৬. জনাব সৈয়দ আবুল মকসুদ: গবেষক, প্রাবন্ধিক ও কলাম লেখক
[জনাব সৈয়দ আবুল মকসুদ “নাগরিক সাংবাদিক শক্তি”র আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]

অ্যাডভাইসারি কাউন্সিল (Advisory Council)

অ্যাডভাইসারস (Advisors)
ব্যারিস্টার সারা হোসেন: আইনজীবী ও মানবাধিকার কর্মী

পার্টি উইঙ্গস – দলীয় অঙ্গ সংগঠন

নাগরিক তরুণ শক্তি
আহ্বায়ক
১. ড. রাগিব হাসান: Assistant Professor, Department of Computer and Information Sciences, University of Alabama at Birmingham
২. ড. মাহবুব মজুমদার: সহযোগী অধ্যাপক, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়;  বাংলাদেশ গণিত দলের কোচ
৩. জনাব তামিম শাহরিয়ার সুবিন: ম্যানেজিং ডিরেক্টার, মুক্তসফট (Muktosoft)
৪. জনাব মাহমুদুজ্জামান বাবু: গায়ক ও সংস্কৃতিকর্মী
৫. জনাব মুসা ইব্রাহীম: এভারেস্ট জয়ী প্রথম বাংলাদেশী
৬. জনাব তাহমিদ-উল-ইসলাম রাফি: সিইও, দ্বিমিক কম্পিউটিং স্কুল; আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াড ২০০৫ এ অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশ গণিত দলের সদস্য

নাগরিক ছাত্র শক্তি
আহ্বায়ক
লাকী আক্তার: কর্মী, গণজাগরণ মঞ্চ
[দেশের প্রত্যেক বিশ্ববিদ্যালয় – কলেজ – মাদ্রাসায় সবার পছন্দের কয়েকজন আদর্শ ছাত্রছাত্রীকে আহ্বায়ক হিসেবে মনোনয়ন দেওয়া হবে।
পাশাপাশি, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অধ্যয়নরত বাংলাদেশী ছাত্রছাত্রীদের আহ্বায়ক হিসেবে মনোনয়ন দেওয়া হবে। নাগরিক শক্তি বিভিন্ন দেশে অধ্যয়নরত বাংলাদেশী ছাত্রছাত্রীদের সাথে দেশের সেতুবন্ধন হিসেবে কাজ করবে।]

নাগরিক গণজাগরণ মঞ্চ
আহ্বায়ক
ডাঃ ইমরান এইচ. সরকার: মুখপাত্র, গণজাগরণ মঞ্চ
লাকী আক্তার: কর্মী, গণজাগরণ মঞ্চ

নাগরিক উদ্যোক্তা ও বিনিয়োগকারী শক্তি
আহ্বায়ক
জনাব এটিএম জাকারিয়া স্বপন: ফাউন্ডার ও সিইও: Priyo.com; টেক এন্ট্রেপ্রেনার; যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালিতে কাজ করার অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ইঞ্জিনিয়ার।

নাগরিক সাংবাদিক শক্তি
আহ্বায়ক
জনাব মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর: মিডিয়া ও উন্নয়নকর্মী
জনাব সৈয়দ আবুল মকসুদ: গবেষক, প্রাবন্ধিক ও কলাম লেখক

নাগরিক শিল্প ব্যবসায়ী শক্তি
আহ্বায়ক
জনাব আতিকুল ইসলাম: সভাপতি, বিজিএমইএ

নাগরিক আইনজীবী শক্তি
আহ্বায়ক
১. ড. কামাল হোসেন: গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের প্রণেতা; সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী
২. ব্যারিস্টার রফিক -উল -হক: জ্যেষ্ঠ আইনজীবী, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট; সমাজসেবক
৩. প্রফেসর ড. শাহদীন মালিক: আইনজীবী, সুপ্রিম কোর্ট এবং অধ্যাপক, স্কুল অফ ল, ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি
৪. প্রফেসর ড. আসিফ নজরুল: অধ্যাপক, আইন বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

নাগরিক বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও শিক্ষা ফোরাম
আহ্বায়ক
ড. মাহবুব মজুমদার: সহযোগী অধ্যাপক, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়; বাংলাদেশ গণিত দলের কোচ।

নাগরিক তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ফোরাম
আহ্বায়ক
১. জনাব এটিএম জাকারিয়া স্বপন: ফাউন্ডার ও সিইও: Priyo.com; টেক এন্ট্রেপ্রেনার; যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালিতে কাজ করার অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ইঞ্জিনিয়ার।
২. ড. রাগিব হাসান: Assistant Professor, Department of Computer and Information Sciences, University of Alabama at Birmingham
৩. জনাব তামিম শাহরিয়ার সুবিন: ম্যানেজিং ডিরেক্টার, মুক্তসফট (Muktosoft)

নাগরিক অর্থনীতি ফোরাম
আহ্বায়ক
১. ড. আকবর আলি খান: অর্থনীতিবিদ, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা
২. অর্থনীতিবিদ ড. হোসেন জিল্লুর রহমান: তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা
৩. অর্থনীতিবিদ প্রফেসর ড. আবুল বারাকাত: মুক্তিযোদ্ধা; ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ও প্রাক্তন চেয়ারম্যান; জনতা ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান; বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সভাপতি।
৪. প্রফেসর আনু মুহাম্মদ: অর্থনীতিবিদ ও অধ্যাপক, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

নাগরিক ওলামা শক্তি
আহ্বায়ক
১. আল্লামা আহমেদ শফি: হেফাজতে ইসলামের আমীর
২. হাফেজ মুহাম্মদ জুনায়েদ বাবুনগরী: হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব
৩. আল্লামা ফরিদ উদ্দিন মাসউদ: ইসলাহুল মুসলিমিন বাংলাদেশের সভাপতি ও ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠের খতিব
৪. ড. মুহাম্মদ আবদুল মুনিম খান: বিশ্ববিদ্যালয়য়ের সহযোগী অধ্যাপক

নাগরিক জাতীয় সম্পদ রক্ষা ফোরাম
আহ্বায়ক
প্রফেসর আনু মুহাম্মদ: অর্থনীতিবিদ ও অধ্যাপক, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

নাগরিক নারী অধিকার ফোরাম
আহ্বায়ক
ব্যারিস্টার সারা হোসেন: আইনজীবী ও মানবাধিকার কর্মী

নাগরিক শিল্প, সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য ফোরাম
আহ্বায়ক
১. জনাব আইয়ুব বাচ্চু: সঙ্গীতজ্ঞ, গায়ক, ব্যান্ড দল LRBর প্রধান
২. জনাব মাহমুদুজ্জামান বাবু: গায়ক ও সংস্কৃতিকর্মী

নারায়ণগঞ্জ জেলা নাগরিক শক্তি
আহ্বায়ক
জনাব রফিউর রাব্বি: সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব; সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের আহ্বায়ক

নাগরিক শক্তির প্রতীক হবে “বই”।

মূলমন্ত্র হবে “জ্ঞানের আলোয় উন্নত বাংলাদেশ”।

রেফরেন্স
১. নাগরিক শক্তি : সংগঠন (Organizaion of Nagorik Shakti)
২. বাংলাদেশ রাষ্ট্রের মূল লক্ষ্য প্রতিষ্ঠায় নাগরিক শক্তি
৩. Nagorik Shakti And The Story Of Bangladesh

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s