আজকের উপলব্ধিতে বাংলাদেশ (১৯/৭/১৪)

1.“মাদকমুক্ত বাংলাদেশ” গড়ার পথে অগ্রগতি

ধুনটে হেরোইনসহ ২ মাদকসেবী আটক (banglanews24.com)
কমলাপুরে ইয়াবাসহ আটক ২ (banglanews24.com)
রাজধানীতে ১২৮০ পিস ইয়াবাসহ আটক ৩ (banglanews24.com)
নড়াইলে ২ মাদক ব্যবসায়ীর কারাদন্ড (banglanews24.com)
রামগঞ্জে অস্ত্রসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার (banglanews24.com)
যাত্রাবাড়ীতে ১৫০ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক ১ (banglanews24.com)
নারায়ণগঞ্জে ১৫২০ পিস ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার ৬ (banglanews24.com)
ভেজাল ইয়াবা তৈরির সরঞ্জামসহ আটক ৪ (banglanews24.com)
রাজশাহীতে রাবের অভিযানে ইয়াবাসহ আটক ৩ (banglanews24.com)
বেনাপোলে হেরোইনসহ নারী আটক (banglanews24.com)
রাজশাহীতে নারী মাদক ব্যবসায়ীকে দুই বছরের কারাদন্ড (banglanews24.com)
সিলেটে ফেনসিডিল চালানসহ আটক ২ (banglanews24.com)

বাংলাদেশ মাদকমুক্ত হওয়ার পথে।
বাংলাদেশের নাগরিকদের দেশ নিয়ে গর্ব করার মত অর্জনের ভান্ডারে আরেকটা অর্জন কিছুদিন পর যোগ হবে।
বাংলাদেশ হবে পৃথিবীর প্রথম অবৈধ মাদকমুক্ত দেশ।

2.“অবৈধ অস্ত্রমুক্ত বাংলাদেশ” গড়ার পথে অগ্রগতি

কক্সবাজারে পুলিশ-সন্ত্রাসী বন্দুকযুদ্ধে গুলিবিদ্ধসহ আটক ৩ (banglanews24.com)
চট্টগ্রামে ৩ অস্ত্র বিক্রেতা আটক (banglanews24.com)
কসবায় বিদেশী পিস্তলসহ গ্রেপ্তার ১ (banglanews24.com)

বাংলাদেশের কোন নাগরিকের কাছে অবৈধ অস্ত্র – মেনে নেওয়া হবে না।
দেশের প্রত্যেকটি অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার করা হবে।
আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা এই লক্ষ্যকে সামনে রেখে কাজ শুরু করেছেন।

3.সাতক্ষীরায় সপ্তাহব্যপী পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান (banglanews24.com)

4.অন্যায় অপরাধ মুক্ত উন্নত লক্ষ্মীপুর জেলা গড়ে তোলায় অগ্রগতি

লক্ষ্মীপুরের সন্ত্রাসী এবং তাদের লালনকারী তাহের বাহিনী প্রধান আবু তাহেরসহ অন্যান্য গডফাদারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আমরা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

রামগতির মেঘনায় আরও ৩ দস্যু আটক (banglanews24.com)

5.পঞ্চগড়ে বিজিবি-বিএসএফ বৈঠক (prothom-alo.com)

5.লংগদুতে বিজিবির ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্পেইন (banglanews24.com)

6.অন্যায় অপরাধ মুক্ত উন্নত ফেনী জেলা গড়ে তোলায় অগ্রগতি

একরাম হত্যাকাণ্ডের পর ফেনীর সন্ত্রাসী চাঁদাবাজদের গ্রেপ্তারের যে প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিল সেই প্রক্রিয়া অব্যাহত রেখে ফেনী জেলাকে সবরকম অন্যায় অপরাধ শুন্য করা হচ্ছে।
যথাসময়ে অস্ত্র মামলার আসামী সাংসদ নিজাম হাজারীকেও গ্রেপ্তার করা হবে।

সোনাগাজীর ত্রাস দস্যু মাসুদ গ্রেপ্তার (banglanews24.com)
ফেনীতে ডাকাত গ্রেপ্তার (banglanews24.com)

7.খাদ্যে ভেজাল রোধ ও ফরমালিনমুক্ত বাংলাদেশ গড়ে তোলার লক্ষ্যে অগ্রগতি 

সিলেটে ভেজাল বিরোধী অভিযানে ৩৫ হাজার টাকা জরিমানা (banglanews24.com)
চাঁদপুরে ফরমালিন মেশানো ১২০ লিটার দুধ বিনষ্ট (priyo.com)
এক সপ্তাহের মধ্যে ঢাকার ২৩৬ বাজারে ফরমালিন টেস্টিং বুথ: ডিএমপি কমিশনার বেনজীর আহমেদ (priyo.com)
বগুড়ায় বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা (banglanews24.com)

টঙ্গীতে ফরমালিনের প্রতিবাদে সচেতন নাগরিক পরিষদের আয়োজনে মানববন্ধন (banglanews24.com)
– জনগণ মাদক, ফরমালিন, বাল্যবিবাহ বন্ধসহ সমাজ পরিবর্তনের লক্ষ্যে এলাকায় এলাকায় “নাগরিক আন্দোলন” গড়ে তুলবেন। গঠন করবেন “নাগরিক কমিটি”। পালন করবেন “নাগরিক কর্মসূচী”।
আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য এবং প্রশাসনের কর্মকর্তাদের “নাগরিক কমিটি”তে অন্তর্ভুক্ত করবেন।

8.আবারও লোক নেবে সৌদি আরব, বললেন শিল্পমন্ত্রী (banglanews24.com)

9.জন্মদিনে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের সঙ্গে আফজাল হোসেন (banglanews24.com)
অভিনেতা আফজাল হোসেনের জন্মদিনে অনেক অনেক শুভেচ্ছা!

10.অন্যায় অপরাধ মুক্ত উন্নত নারায়ণগঞ্জ জেলা গড়ে তোলায় অগ্রগতি

নজরুল হত্যাকাণ্ডের পর নারায়ণগঞ্জের সন্ত্রাসী চাঁদাবাজদের গ্রেপ্তারের যে প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিল সেই প্রক্রিয়া অব্যাহত রেখে নারায়ণগঞ্জ জেলাকে সবরকম অন্যায় অপরাধ শুন্য করা হচ্ছে।
যথাসময়ে ত্বকী হত্যাসহ অসংখ্য অপরাধের হোতা সন্ত্রাসীদের গডফাদার সাংসদ ওসমানদেরও গ্রেপ্তার করা হবে।

নূর হোসেনের ক্যাশিয়ার গ্রেপ্তার (banglanews24.com)
নূর হোসেনের সহযোগী আলী মোহাম্মদ গ্রেপ্তার (prothom-alo.com)
নারায়ণগঞ্জে ১৫২০ পিস ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার ৬ (banglanews24.com)

12.আমি মার্কিন যুক্তরাস্ট্রে বাংলাদেশী পণ্যের অবাধ বাজার সুবিধা (জিএসপি) নিশ্চিত করবো। এ লক্ষ্যে যা করা দরকার – শ্রমিকদের নিরাপদ পরিবেশ নিশ্চিত করা, কূটনৈতিক উদ্যোগ – নেবো।

13.আমরা বাংলাদেশ থেকে অন্যায় অপরাধ দূর করতে কাজ করছি। দেশের মানুষের নিরাপত্তা অনেকখানি বেড়েছে। দুর্নীতি দূর করার লক্ষ্য নিয়ে আমরা কাজ করছি।

বাংলাদেশ থেকে সমস্ত অন্যায় – অপরাধ দূর করা হবে।

সারা পৃথিবীতে প্রথম মাদকমুক্ত দেশ হবে বাংলাদেশ। (অ্যাই, কি যে ভালো লাগছে না! পৃথিবীর একটা দেশ পুরোপুরিভাবে মাদকমুক্ত! ঐ দেশটাতে কোন মাদক নেই! কোন দেশ জানো? তোমার আমার বাংলাদেশ!)  

কিছুদিনের মাঝে খাদ্যে ভেজাল বা ফরমালিন অতীতের একটা ব্যাপারে পরিণত হবে। (“জানো, দেশের ফলমূলে একসময় ফরমালিন দেওয়া হত!”)

কয়েক বছর আগে পৃথিবীর শীর্ষ দুর্নীতিগ্রস্থ দেশ বাংলাদেশ হবে সম্পূর্ণভাবে দুর্নীতিমুক্ত

কিছুদিন পর বাংলাদেশের কোন নাগরিকের কাছে অবৈধ অস্ত্র বলে কিছু থাকবে না। এই লক্ষ্যেও কাজ দৃঢ় পদক্ষেপে এগুচ্ছে।

উপরের লক্ষ্যগুলো অর্জনের পর সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তুলতে আমাদের মেধাবী মানুষদের প্রয়োজন হবে।
দেশের অর্থনীতিকে এগিয়ে নিতে এবং নতুন প্রজন্মকে গড়ে তুলতে বিদেশে কর্মরত দক্ষ বিজ্ঞানী ইঞ্জিনিয়ার চিকিৎসক এক্সপার্টদের দেশে ফিরিয়ে আনা হবে। 
আমরা তাদের ফান্ডিং, ইনভেস্টমেন্ট নিশ্চিত করবো। আর তারা দেশে নতুন নতুন Industry প্রতিষ্ঠা করবেন। বিশ্বমানের University গড়ে তুলবেন।

গড়ে উঠবে স্বপ্নের আধুনিক উন্নত বাংলাদেশ।

14.আমাদের দেশের প্রচলিত রাজনৈতিক দলগুলো ক্রমান্বয়ে জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ছে।
জনবিছিন্ন হতে হতে বিএনপি এর মত এককালের বড় দল শক্তিহীন হয়ে ধীরে ধীরে অস্তিত্ব সংকটের দিকে যাবে।

15.বস্তিবাসীদের সঙ্গে ইফতার করলেন ডিএমপি কমিশনার বেনজীর আহমেদ (banglanews24.com)

16.লেখক হুমায়ূন আহমেদ স্মরণে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল (banglanews24.com)

18.সাতক্ষীরায় লাইব্রেরি অটোমেশান কর্মশালা (banglanews24.com)

19.অন্যায় অপরাধমুক্ত উন্নত চট্টগ্রাম জেলা গড়ে তোলায় অগ্রগতি

আমার নিজের জেলা চট্টগ্রামকে নতুন করে গড়ে তোলা হবে। বন্দর নগরী চট্টগ্রাম হবে একবিংশ শতাব্দীর সব সুযোগ সুবিধা সম্বলিত আধুনিক একটি নগর।

চট্টগ্রামে ৩ অস্ত্র বিক্রেতা আটক (banglanews24.com)
চট্টগ্রামে জাল নোটসহ গ্রেপ্তার ২ (banglanews24.com)
পথ শিশুদের ঈদের পোশাক দিলেন চট্টগ্রাম মেয়র (banglanews24.com)
চট্টগ্রামে দাম কমছে রোজার পণ্যের (prothom-alo.com)
– “ছোলা, মটর, ডালসহ বেশির ভাগ পণ্যের দাম কমেছে কেজিতে তিন থেকে সাত টাকা।”

20.আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে স্থায়ী জনবল নিয়োগ হচ্ছে (prothom-alo.com)

21.অন্যায় অপরাধমুক্ত উন্নত সিলেট জেলা গড়ে তোলায় অগ্রগতি

সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের ইফতার মাহফিল (banglanews24.com)

সিলেটে যানজট নিরসনে সড়কে রোভার স্কাউটস (banglanews24.com)
সিলেট মেট্রোপলিটান চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি এবং রোভার স্কাউটস এর এই উদ্যোগকে আমরা স্বাগত জানাই।

22.অমল সেনের জন্মশতবর্ষের আলোচনা: মুক্তিযুদ্ধের চেতনা পুন:প্রতিষ্ঠায় একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান (prothom-alo.com)

“আলোচনায় অংশ নিয়ে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম মনে করেন, বাম আন্দোলনের গুণগত পরিবর্তনের জন্যই ঐক্য জরুরি।
মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম আরও বলেন, ‘এর মধ্য দিয়ে আমরা যেমন মুক্তিযুদ্ধের বিরোধীদের চ্যালেঞ্জ করতে পারব, তেমনি চ্যালেঞ্জ করতে পারব বুর্জোয়া রাজনৈতিক লুটেরাদের।’
ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, ‘আমরা যদি এ সংগ্রামের ধারায় ঐক্যবদ্ধ হই, তাহলে মানুষ একটা দিশা খুঁজে পাবে। আমাদের ওপরও তাদের আস্থা ফিরতে শুরু করবে।’
বাদশার মতোই ‘দলে-উপদলে-গোষ্ঠীতে’ বিভক্ত বামদলগুলোকে জনবিচ্ছিন্নতা থেকে জনসম্পৃক্ততার জায়গায় নিয়ে যাওয়ার জন্য ঐক্যের বিকল্প দেখছেন না সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব কামাল লোহানী। একই সঙ্গে রাজনীতির পাশাপাশি সাংস্কৃতিক আন্দোলনকে জোরদার করার জন্য অমল সেনের পরামর্শও মনে করিয়ে দেন তিনি।
এ বিষয়ে ঐক্য ন্যাপের সভাপতি পঙ্কজ ভট্টাচার্যের বক্তব্যও একই রকম। সংকট উত্তরণে অমল সেনের জীবন থেকে শিক্ষা নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।
আলোচনা অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন সাম্প্রদায়িকতা ও জঙ্গিবাদবিরোধী মঞ্চের আহ্বায়ক অজয় রায়, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, প্রবীণ সাংবাদিক শুভ রহমান।
এর আগে অনুষ্ঠানের শুরুতে ‘জনগণের বিকল্প শক্তি গড়ে তোলার সংগ্রাম ও কমরেড অমল সেন’ শীর্ষক প্রবন্ধ পাঠ করেন ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন।” 

আমরা মনে করি, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়ে তুলতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

23.রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে সাফল্য

চট্টগ্রামে দাম কমছে রোজার পণ্যের (prothom-alo.com)

“ছোলা, মটর, ডালসহ বেশির ভাগ পণ্যের দাম কমেছে কেজিতে তিন থেকে সাত টাকা।”

রমজানের আগে দ্রব্যমূল্য স্থিতিশীল রাখাকে চ্যালেঞ্জ হিসবে নিতে প্রশাসন এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে আহ্বান করেছিলাম।

এবারের রমজানে প্রশাসন এবং আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কর্মতৎপরতায় দ্রব্যমূল্য স্থিতিশীল ছিল। সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে কঠোর ও সতর্ক অবস্থান, দোকানে দাম টানিয়ে রাখাসহ গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল।
ঈদ পর্যন্ত সতর্ক অবস্থান অব্যাহত রাখতে হবে।

24.তেল গ্যাস কমিটির মতবিনিময়: বিদেশী কোম্পানির স্বার্থে কাজ করছে সরকার (prothom-alo.com)

25.ঈদ আসে বিদেশে (prothom-alo.com)

বিভিন্ন দেশের খ্যাতনামা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের দেশের সাথে বন্ধন আরও দৃঢ় করতে হবে।

26.অর্থনীতি – শিল্প – বাণিজ্যে অগ্রগতির খবর

এফবিসিসিআই – আইওএম সহযোগিতা চুক্তি সই (banglanews24.com)
“এফবিসিসিআই সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ বলেন, এ চুক্তির ফলে শ্রম অভিবাসন, পাচার রোধ, অভিবাসী শ্রমিকদের অধিকার নিশ্চিত করার সুযোগ সৃষ্টি হবে।”

যাকাত দিতে বিত্তবানদের ঢাকা চেম্বারের আহ্বান (banglanews24.com)
সমস্যা ও সম্ভাবনার নাম বগুড়া বেনারসি পল্লী (banglanews24.com)

27.গণিতের গর্ব নূর মোহাম্মদ শফিউলাহ (prothom-alo.com)

28.চট্টগ্রাম বন্দর দেশের অর্থনীতির চাকা ঘুরিয়ে দিতে পারে।

আমাদের দেশের প্রধান রপ্তানি পণ্য গার্মেন্টস মূলত চট্টগ্রাম বন্দর দিয়েই বাইরের দেশগুলোতে রপ্তানি হয়।
বর্তমানে চট্টগ্রাম বন্দরে একটি জাহাজ turnaround হতে গড়ে আড়াই দিন সময় লাগে। তুলনামূলকভাবে, সিঙ্গাপুর বন্দরে সময় লাগে গড়ে ১২ ঘন্টা।
আমরা যদি চট্টগ্রাম বন্দরে জাহাজ turnaround সময় কমিয়ে আনতে পারি তাহলে আমদানি – রপ্তানি বাণিজ্য বৃদ্ধি পাবে।
একটা ব্যাপার মনে রাখতে হবে, আমাদের আমদানি রপ্তানি বাণিজ্য কিন্তু দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে।
McKinsey ধারণা করছে, বাংলাদেশের আগামী ১০ বছরে গার্মেন্টস পণ্য রপ্তানি দ্বিগুণ করার সুযোগ রয়েছে। আমরা মনে করি, আগামী ৫ বছর বা তারও আগে গার্মেন্টস পণ্য রপ্তানি দ্বিগুণ হবে।
এই রপ্তানি কিন্তু চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহার করেই হবে।
এই রপ্তানির জন্য গুরুত্বপূর্ণ হবে চট্টগ্রাম বন্দরের কনেটাইনার হান্ডলিং কাপাসিটি বাড়ানো এবং জাহাজ turnaround সময় কমিয়ে আনা। এই লক্ষ্যে আধুনিক যন্ত্রপাতি এবং Management চট্টগ্রাম বন্দরে
introduce করা হবে।

চট্টগ্রাম বন্দরের আন্তর্জাতিক গুরুত্ব অনেক বেশি।
নেপাল আর ভুটানের পণ্য আমদানি রপ্তানির জন্য নিজস্ব কোন নদী বা সমুদ্র বন্দর নেই।
চট্টগ্রাম বন্দরের আধুনিকায়ন করলে নেপাল, ভুটান পণ্য আমদানি রপ্তানির জন্য চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহার করবে।
আবার ভারত তার উত্তরপূর্ব প্রদেশগুলোর সাথে পণ্য আদান প্রদান করতে চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহার করতে চাইবে।

গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হল – চট্টগ্রাম বন্দর একটি নদী বন্দর। কাজেই দীর্ঘ পণ্যবাহী জাহাজ (৬১৭ ফিট এর চেয়ে দীর্ঘ) চট্টগ্রাম বন্দরে প্রবেশ করতে পারে না।
কাজেই আমাদের রপ্তানি বাণিজ্য পণ্য প্রথমে সিঙ্গাপুর, শ্রীলংকা এবং মালয়েশিয়ার ৪টি বন্দরে পৌঁছানো হয় এবং সেসব বন্দর থেকে দীর্ঘ পণ্যবাহী জাহাজের মাধ্যমে বাইরের দেশগুলোতে যায়।

দীর্ঘ পণ্যবাহী জাহাজ প্রবেশের সুযোগ দিতে আমাদের একটি গভীর সমুদ্র বন্দর নির্মাণ করতে হবে। সোনাদিয়ায় একটি গভীর সমুদ্র বন্দর গড়ে তোলার পরিকল্পনা আছে।

এক্ষেত্রে আমাদের প্রতিদ্বন্দ্বী মায়ানমারের নির্মাণাধীন Sittwe Port। ভারত নিজেদের সুবিধার্থে এই “গভীর সমুদ্র বন্দর” নির্মাণে মায়ানমারকে সহায়তা করছে।

আধুনিক সুযোগ সুবিধা সম্বলিত efficient গভীর সমুদ্র বন্দর নির্মাণ করতে পারলে চায়না, ভারতসহ বিভিন্ন দেশ সেই বন্দর ব্যবহার করবে। আর এর মাধ্যমে বাংলাদেশ বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করবে।

টেকনিক্যাল কাজগুলোতে বিদেশী এক্সপারটাইসের উপর নির্ভরতার ট্রেন্ডটিতে পরিবর্তন আনা হবে।
আমাদের গভীর সমুদ্র বন্দর আমরা নিজেরা নির্মাণ করবো।
এই লক্ষ্যে আমি দেশে ইঞ্জিনিয়ারিং প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলবো।

এই মুহূর্তে গুরুত্বপূর্ণ হবে দ্রুত নিউমুরিং কনটেইনার টার্মিনাল চালু। শুধুমাত্র সিধান্ত নিতে দেরি হওয়ায় নিউমুরিং কনটেইনার টার্মিনাল চালু আটকে রয়েছে।

29.বিমানবন্দরগুলোতে স্বর্ণ চোরাচালান রোধে অগ্রগতি

শাহজালালে ৪ কেজি সোনাসহ যাত্রী আটক (banglanews24.com)
শাহজালালে ফের ৫০ সোনার বারসহ যাত্রী আটক (banglanews24.com)

শাহজালাল এবং চট্টগ্রামের শাহ আমানত বিমানবন্দর দীর্ঘদিন স্বর্ণ চোরাচালানের রুট হিসবে ব্যবহৃত হচ্ছিল। গত কয়েক মাসের কঠোর অবস্থানে স্বর্ণ চোরাচালান রোধে অনেকখানি অগ্রগতি হয়েছে।

30.মংলায় ভিজিএফ-এর চাল আত্মসাৎকালে আটক ১ (banglanews24.com)

31.তথ্যপ্রযুক্তিতে বিলিয়ন ডলার রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা অর্জন

দেশে সফটওয়্যার ডেভেলাপমেন্ট এখনও মূলত ওয়েব ডেভেলাপমেন্ট, মোবাইল অ্যাপস ডেভেলাপমেন্ট এবং ছোট আকারের ERP (Enterprise Resource Planning) সফটওয়্যারের মাঝে সীমিত।
আমাদের ভালো কাজের মাঝে Pageflakes আছে।

একটা ব্যাপার আমাদের দেশের ডেভেলাপারদের জানতে হবে আর তা হল এখন Open Source Tools, Cloud Computing ব্যবহার করে উন্নত মানের সফটওয়্যার সহজেই ডেভেলাপ করা যায়।
আর উন্নত মানের সফটওয়্যার ডেভেলাপ করে মিলিয়ন ডলারের Market ধরা সম্ভব।

ভারতের কোম্পানিগুলো কিন্তু Hadoop, MongoDB, অন্যান্য NoSQL Database ইত্যাদি Open Source Tools ব্যবহার করে এবং Amazon Web Service এর মত Cloud Computing Infrastructure ব্যবহার করে
Big Data স্পেইসে কাজ করছে।

Hadoop, HBase, MongoDB, অন্যান্য NoSQL Database ইত্যাদি Open Source Tools ব্যবহার করে এবং Amazon Web Service, Microsoft Cloud এর মত
Cloud Computing Infrastructure ব্যবহার করে আমাদের ছেলেরাও Big Data অ্যাপ্লিকেশান দাঁড় করাতে পারে।

আমাদের ছেলেদের মাঝে Open Source Library / Framework ব্যবহার করে Software Development এর culture ছড়িয়ে দিতে হবে।
শুধু CakePHP, jQuery দিয়ে Web Development না, সাথে Cassandra, Hadoop, Pig ব্যবহার করে Distributed Application ডেভেলাপ করাও জানতে হবে।

Open Source Tools, Cloud Computing ব্যবহার করে সফটওয়্যার ডেভেলাপমেন্ট স্কিলস কিভাবে গড়ে তোলা যায়?

দেশে বিভিন্ন Open Source Framework / Library, Cloud Computing Infrastructure এসবের users’ group গড়ে তুলতে হবে।
সবাই মিলে ডিসকাস করে, প্রজেক্টে কাজ করে শিখবে।
কিছুদিন আগে অনুষ্ঠিত Pycon Dhaka এর  মত অন্যান্য Software Development Tools এর উপর নিয়মিত কনফারেন্স আয়োজন করতে হবে।

University তে 1st year এ Basic Programming, 2nd-3rd year এ Programming Contest, 4th year এ বিভিন্ন Open Source Tools ব্যবহার করে সফটওয়্যার ডেভেলাপমেন্ট – এর উপর জোর দেওয়া যায়।
Coursera, Udacity, MITx, EdX থেকে সবাই সেরা University গুলোর Course বাসায় বসে নিতে পারে। ইন্টারনেট সংযোগ খরচ কমিয়ে আনতে হবে।

আমাদের দেশে মূলত Outsourcing কাজগুলো হয় – বাইরের customer দের product আমরা ডেভেলাপ করে দেই।
আমাদের নিজস্ব প্রোডাক্ট ডেভেলাপমেন্ট এর দিকে যাওয়ার সময় এসেছে।

নিজেদের startup company গড়ে জন্য তোলার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া দরকার।
প্রথমে দরকার ডেভেলাপারদের মাঝে skills গুলো ডেভেলাপ করা।
Software Development শেখার পাশাপাশি International Market এ কি কি ধরণের Software product তৈরি হচ্ছে – সবসময় নজরে রাখতে হবে। readwrite.com, techcrunch.com বা
আমাদের tech.priyo.com থেকে নিয়মিত ঘুরে আসা কি খুব কঠিন?
Venture Capital Firm, Start-up incubator, Hackathon ইত্যাদি introduce করতে হবে।
Entrepreneurial culture গড়ে তুলতে হবে।

বর্তমান সময়টাই Entrepreneurial culture বিকাশের সময়।
সত্যি বলতে, ১০-১৫ বছর আগেও যে অ্যাপ্লিকেশান Government বা বড় কোম্পানি – বিশাল লোকবল ছাড়া develop করা সম্ভব ছিল না, বর্তমানে কিন্তু ছোট একটা startup ওরকম অ্যাপ্লিকেশান develop করতে পারে।
Open Source Tools আর Cloud Computing এর মাধ্যমে startup দাঁড় করানো এখন অনেক সহজ হয়ে গেছে, খরচ অনেকাংশে কমে গেছে।
যেমন – একটা Cluster (অনেকগুলো connected computer) এ run করবে – এমন computation intensive কোন processing এর code লেখা অনেক কঠিন। কিন্তু Hadoop ব্যবহার করে খুব সহজেই কাজটা আমরা
করতে পারি।
আবার অনেকগুলো কম্পিউটারের Cluster নিজেদের কিনে run করাতে হবে না, সামান্য খরচে Amazon Web Service এ সেই কোড Mapreduce Job হিসেবে run করানো যাবে।

Mark Zuckerberg যদি বন্ধুদের নিয়ে বর্তমানে ১০০ বিলিয়ন ডলার valuation এর Facebook প্রতিষ্ঠা করতে পারে – আমাদের ছেলেদের একটা startup কেন পারবে না?

বিলিয়ন ডলার আইটি ইন্ডাস্ট্রি গড়ে তুলতে আমাদের BPO (Business Process Outsourcing), ITO (Information Technology Outsourcing) এর উপর জোর দিতে হবে।
এক্ষেত্রে Expertise, skillsগড়ে তুলতে হবে। সাথে প্রয়োজন হবে বাংলাদেশকে Outsourcung destination হিসেবে International Marketing.

Egypt কিন্তু BPO (Business Process Outsourcing), ITO (Information Technology Outsourcing) তে এই কাজটাই করেছে –
Skills development,
Institution গড়ে তোলা আর
International Marketing.

আমাদের BBA গ্রাজুয়েটদের নিয়ে দেশে Business Process Outsourcing (BPO) industry গড়ে তোলার যায়।

তথ্যপ্রযুক্তিতে স্বল্প মেয়াদী পরিকল্পনা ফ্রিলান্সিং কে ঘিরে করা উচিত।
ফ্রিলান্সিং এর বিভিন্ন স্কিলস, ইংরেজিতে দক্ষতা শেখানোর জন্য প্রয়োজনীয় প্রতিষ্ঠান (ব্যক্তিগত উদ্যোগেও হতে পারে) গড়ে তোলা, কম্পিউটার-ইন্টারনেট সংযোগের জন্য ঋণসুবিধা দেওয়া জরুরী।
সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ফ্রিলান্সিং করে ঘরে বসে যথেষ্ট অর্থ উপার্জন করা যায় – এ ব্যাপারে সারা দেশে সচেতনতা সৃষ্টি।
লক্ষ টাকা ব্যয় করে মধ্যপ্রাচ্যে গিয়ে একজন বাংলাদেশী যে পরিমাণ অর্থ উপার্জন করতে পারে, ঘরে বসে ফ্রিলান্সিং করে একজন শিক্ষিত তরুণ তার চেয়ে বেশি অর্থ উপার্জন করতে পারে।
“ঘরে বসে বড়লোক” – এমন দৃষ্টান্ত আরও আরও দেখতে চাই।

সবাই মিলে একসাথে কাজ করলে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বিলিয়ন ডলার রপ্তানির লক্ষ্যমাত্রা অর্জন – খুব দ্রুতই সম্ভব।

32.দুর্গম পাহাড়ে কষ্টের শিক্ষা (prothom-alo.com)
পার্বত্য চট্টগ্রামের ১০০ ভাগ শিক্ষার্থীকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষাদানের সুযোগ করে দেওয়ার লক্ষ্যে ৩ পার্বত্য জেলায় প্রয়োজনীয় স্কুল প্রতিষ্ঠিত করা হবে।  

33.নাগরিক শক্তি ক্ষমতায় গিয়ে সারা দেশে প্রয়োজনীয় বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করার চ্যালেঞ্জ হাতে নেবে।

নাগরিক শক্তি: সংগঠন

ভাইস প্রেসিডেন্ট (Vice President)
১. জেনারেল হাসান মশহুদ চৌধুরী: সাবেক সেনাপ্রধান; তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা; দুর্নীতি দমন কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান
২. ড. কামাল হোসেন: গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের প্রণেতা; সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী
৩. প্রফেসর এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী: সাবেক রাষ্ট্রপতি; সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী; প্রফেসর অফ মেডিসিন
৪. ড. আকবর আলি খান: অর্থনীতিবিদ; তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা
৫. ব্যারিস্টার রফিক -উল -হক: জ্যেষ্ঠ আইনজীবী, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট; সমাজসেবক
৬. প্রফেসর ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী: তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা; উপাচার্য, ইউনিভার্সিটি অফ এশিয়া প্যাসিফিক; সভাপতি, বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটি
৭. আল্লামা আহমেদ শফি: হেফাজতে ইসলামের আমীর

“নাগরিক শক্তি”র আনুষ্ঠানিক আত্নপ্রকাশ ঘোষণার পর উল্লেখিত ব্যক্তিরা দলের ভাইস প্রেসিডেন্টের সম্মান গ্রহণ করবেন।

সেক্রেটারিয়েট (Secretariat)

জেনারেল সেক্রেটারি (General Secretary)
ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব:) এম সাখাওয়াত হোসেন: সাবেক নির্বাচন কমিশনার

কো-জেনারেল সেক্রেটারি (Co-general Secretary)
১. অর্থনীতিবিদ ড. হোসেন জিল্লুর রহমান: তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা
২. অর্থনীতিবিদ প্রফেসর ড. আবুল বারাকাত: মুক্তিযোদ্ধা; ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ও প্রাক্তন চেয়ারম্যান; জনতা ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান; বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সভাপতি।
[অর্থনীতিবিদ ড. হোসেন জিল্লুর রহমান এবং অর্থনীতিবিদ প্রফেসর ড. আবুল বারাকাত “নাগরিক অর্থনীতি ফোরাম”এর আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]

জয়েন্ট জেনারেল সেক্রেটারি (Joint General Secretary)
১. জনাব আতিকুল ইসলাম: সভাপতি, BGMEA (সিনিয়ার)
[জনাব আতিকুল ইসলাম “নাগরিক শিল্প ব্যবসায়ী শক্তি”র আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]
২. জনাব মাহমুদুর রহমান মান্না: আহ্বায়ক, নাগরিক ঐক্য (সিনিয়ার)
৩. জনাব মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর: মিডিয়া ও উন্নয়নকর্মী
[জনাব মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর “নাগরিক সাংবাদিক শক্তি”র আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]
৪. জনাব তানজিম আহমেদ সোহেল তাজ: সাবেক সাংসদ ও স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী
৫. জনাব মাহী বি. চৌধুরী: সাবেক সাংসদ
৬. প্রফেসর ড. আসিফ নজরুল: অধ্যাপক, আইন বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
[প্রফেসর ড. আসিফ নজরুল “নাগরিক আইনজীবী শক্তি”র আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]
৭. প্রফেসর আনু মুহাম্মদ: অর্থনীতিবিদ ও অধ্যাপক, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়
[প্রফেসর আনু মুহাম্মদ “নাগরিক জাতীয় সম্পদ রক্ষা ফোরাম” এর আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]
৮. হাফেজ মুহাম্মদ জুনায়েদ বাবুনগরী: হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব
৯. জনাব জোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় (সন্তু) লারমা: পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) সভাপতি

“নাগরিক শক্তি”র আনুষ্ঠানিক আত্নপ্রকাশ ঘোষণার পর উল্লেখিত ব্যক্তিরা দলের জেনারেল সেক্রেটারি, কো-জেনারেল সেক্রেটারি এবং জয়েন্ট জেনারেল সেক্রেটারি হিসেবে নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করবেন।

[সেক্রেটারিয়েটের সদস্যরা সারা দেশে দলের সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনা করবেন।]

ন্যাশনাল কাউন্সিল (National Council)

মেম্বারস (Members)
১. ড. এটিএম শামসূল হুদা: সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার; সাবেক সচিব (সিনিয়ার)
২. ড. সা’দত হুসাইন: সাবেক মন্ত্রী পরিষদ সচিব; পাবলিক সার্ভিস কমিশন (পিএসসি) র সাবেক চেয়ারম্যান (সিনিয়ার)
৩. বঙ্গবীর আবদুল কাদের সিদ্দিকী: বীর উত্তম; প্রবীণ রাজনীতিবিদ (সিনিয়ার)
৪. জনাব আ স ম আব্দুর রব: প্রাক্তন মন্ত্রী; প্রবীণ রাজনীতিবিদ; মুক্তিযোদ্ধা (সিনিয়ার)
৫. ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ: বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির প্রাক্তন সভাপতি (সিনিয়ার)
৬. জনাব কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ: সভাপতি, FBCCI; ফাউন্ডার চেয়ারম্যান: স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেড (সিনিয়ার)
৭. ড. ফেরদৌস আহমেদ কোরেশী: প্রবীণ রাজনীতিবিদ (সিনিয়ার)
৮. জনাব মেজর (অব:) আবদুল মান্নান: সাবেক মন্ত্রী; চেয়ারম্যান, বাংলালায়ন কমিউনিকেশান্স লিমিটেড (সিনিয়ার)
৯. অধ্যাপক ড. আবু সাইয়িদ: সাবেক মন্ত্রী; প্রবীণ রাজনীতিবিদ (সিনিয়ার)
১০. জনাব রফিউর রাব্বি: সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব; সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের আহ্বায়ক
[ন্যাশনাল কাউন্সিলের পাশাপাশি জনাব রফিউর রাব্বি “নারায়ণগঞ্জ জেলা নাগরিক শক্তি”র আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]
১১. প্রফেসর ড. শাহদীন মালিক: আইনজীবী, সুপ্রিম কোর্ট এবং অধ্যাপক, স্কুল অফ ল, ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি
[প্রফেসর ড. শাহদীন মালিক “নাগরিক আইনজীবী শক্তি”র আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]
১২. জনাব সৈয়দ আবুল মকসুদ: গবেষক, প্রাবন্ধিক ও কলাম লেখক
[জনাব সৈয়দ আবুল মকসুদ “নাগরিক সাংবাদিক শক্তি”র আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]
১৩. প্রফেসর ড. সিদ্দিক-ই-রাব্বানী: ফাউন্ডিং চেয়ারপার্সন, ডিপার্টমেন্ট অফ বায়োমেডিকাল ফিজিক্স অ্যান্ড টেকনোলজি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়; বাংলাদেশ একাডেমী অফ সায়েন্স কর্তৃক গোল্ড মেডেল প্রাপ্ত বিজ্ঞানী
১৪. প্রফেসর মামুনুর রশিদ: ভাইস প্রেসিডেন্ট, BD Ventures Limited; প্রাক্তন ডিরেক্টার, BRAC Business School; প্রাক্তন সিইও, সিটি ব্যাংক লিমিটেড

“নাগরিক শক্তি”র আনুষ্ঠানিক আত্নপ্রকাশ ঘোষণার পর উল্লেখিত ব্যক্তিরা ন্যাশনাল কাউন্সিলে মেম্বার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

[ন্যাশনাল কাউন্সিলের মেম্বার এবং এসোসিয়েটদের ভোটে একজন স্পীকার (Speaker) এবং একজন ডেপুটি স্পীকার (Deputy Speaker) নির্বাচিত হবেন।
Speaker এবং Deputy Speaker ন্যাশনাল কাউন্সিলের মিটিংগুলো পরিচালনা করবেন।]

[প্রেসিডেন্ট, এক্সিকিউটিভ প্রেসিডেন্ট এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট এর সমন্বয় সরকারের Executive Division এর সাথে তুলনীয় হলে
ন্যাশনাল কাউন্সিল (National Council) সরকারের Legislative Division (আইনসভা) এর সাথে তুলনীয়।]

[ন্যাশনাল কাউন্সিলের মেম্বার এবং এসোসিয়েটরা নিজ নিজ আগ্রহ, দক্ষতা অনুসারে কাজের ফোকাস বেছে নেবেন
এবং সম্পর্কিত দলের ফোরামের সাথে নিজেকে যুক্ত করবেন অথবা নিজেই একটি ফোরাম গঠন করবেন।]

অ্যাডভাইসারি কাউন্সিল (Advisory Council)

অ্যাডভাইসারস (Advisors)
১. জনাব সৈয়দ মনজুর এলাহী: ব্যবসায়ী নেতা ও এপেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান; তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা
২. ব্যারিস্টার সারা হোসেন: আইনজীবী ও মানবাধিকার কর্মী

“নাগরিক শক্তি”র আনুষ্ঠানিক আত্নপ্রকাশ ঘোষণার পর উল্লেখিত ব্যক্তিরা অ্যাডভাইসারি কাউন্সিলে অ্যাডভাইসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

পার্টি উইঙ্গস – দলীয় অঙ্গ সংগঠন

[প্রত্যেক অঙ্গ সংগঠন এবং ফোরামকে নিজ নিজ গঠনপ্রণালী, কার্যবিধি, কর্মপরিধি নির্ধারণ করার ক্ষেত্রে পূর্ণ স্বাধীনতা দেওয়া হবে। এতে অঙ্গ সংগঠন এবং ফোরামের সদস্যরা empowered অনুভব করবেন এবং লিডারশীপ স্কিলস ডেভেলাপ করার সুযোগ পাবেন।
প্রত্যেক অঙ্গ সংগঠন এবং ফোরামের সদস্যরা নিজেরা একটি কমিটি গঠন করে নিজ নিজ গঠনপ্রণালী, কার্যবিধি, কর্মপরিধি নির্ধারণ করবেন।
তবে অঙ্গ সংগঠন এবং ফোরামগুলোকে নাগরিক শক্তির মূলনীতিগুলো (গণতান্ত্রিক আচরণ, জবাবদিহিতা, জাতি ধর্ম বর্ণ নারী পুরুষ নির্বিশেষে সবার স্বার্থ সংরক্ষণ ইত্যাদি) মেনে চলতে হবে এবং
সেক্রেটারিয়েট, ন্যাশনাল কাউন্সিল ও অ্যাডভাইসারি কাউন্সিলের কাছে নিয়মিত রিপোর্ট করতে হবে।
কোন একদিন অঙ্গ সংগঠনগুলোর একজন সদস্য বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী এবং অপর একজন সদস্য বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মনোনীত হবেন।]

নাগরিক তরুণ শক্তি
আহ্বায়ক
১. জনাব মাহী বি. চৌধুরী: সাবেক সাংসদ
২. জনাব তানজিম আহমেদ সোহেল তাজ: সাবেক সাংসদ ও স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী
৩. ড. রাগিব হাসান: Assistant Professor, Department of Computer and Information Sciences, University of Alabama at Birmingham; প্রতিষ্ঠাতা, শিক্ষক.কম
৪. ড. মাহবুব মজুমদার: সহযোগী অধ্যাপক, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়;  বাংলাদেশ গণিত দলের কোচ
৫. জনাব তামিম শাহরিয়ার সুবিন: ম্যানেজিং ডিরেক্টার, মুক্তসফট (Muktosoft) লিমিটেড
৬. ড. ফারসীম মান্নান মোহাম্মদী: বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (BUET) শিক্ষক; বিজ্ঞান লেখক
৭. জনাব মাহমুদুজ্জামান বাবু: গায়ক ও সংস্কৃতিকর্মী
৮. জনাব মুসা ইব্রাহীম: এভারেস্ট জয়ী প্রথম বাংলাদেশী
৯. জনাব শাহরিয়ার রউফ নাফি: সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার, Google; বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়য়ের (BUET) প্রাক্তন শিক্ষক; আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াড ২০০৫ এ অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশ গণিত দলের সদস্য
১০. জনাব মোঃ মাহবুবুল হাসান (শান্ত): বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়য়ের (BUET) প্রাক্তন শিক্ষক; আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াড ২০০৫ এ অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশ গণিত দলের সদস্য
১১. জনাব তাহমিদ-উল-ইসলাম রাফি: সিইও, দ্বিমিক কম্পিউটিং স্কুল; আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াড ২০০৫ এ অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশ গণিত দলের সদস্য
১২. জনাব মোঃ কায়সার আলী: সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার, Samsung R&D Center, Bangladesh

নাগরিক ছাত্র শক্তি
আহ্বায়ক
১. লাকী আক্তার: কর্মী, গণজাগরণ মঞ্চ; বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক
২. নুহাশ হুমায়ূন: ছাত্র, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগ, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়
৩. তারিক আদনান মুন: যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত বাংলাদেশী ছাত্র (গণিত ও কম্পিউটার বিজ্ঞান মেজর); আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াডে বাংলাদেশের পক্ষে ব্রোঞ্জ পদক জয়ী
[দেশের প্রত্যেক বিশ্ববিদ্যালয় – কলেজ – মাদ্রাসায় সবার পছন্দের কয়েকজন আদর্শ ছাত্রছাত্রীকে আহ্বায়ক হিসেবে মনোনয়ন দেওয়া হবে।
পাশাপাশি, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অধ্যয়নরত বাংলাদেশী ছাত্রছাত্রীদের আহ্বায়ক হিসেবে মনোনয়ন দেওয়া হবে। নাগরিক শক্তি বিভিন্ন দেশে অধ্যয়নরত বাংলাদেশী ছাত্রছাত্রীদের সাথে দেশের সেতুবন্ধন হিসেবে কাজ করবে।]

নাগরিক গণজাগরণ মঞ্চ
আহ্বায়ক
১. ডাঃ ইমরান এইচ. সরকার: মুখপাত্র, গণজাগরণ মঞ্চ
২. লাকী আক্তার: কর্মী, গণজাগরণ মঞ্চ; বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক
৩. জনাব বাপ্পাদিত্ত বসু: কর্মী, গণজাগরণ মঞ্চ; বাংলাদেশ ছাত্রমৈত্রীর সভাপতি

নাগরিক মুক্তিযোদ্ধা শক্তি
আহ্বায়ক
১. বঙ্গবীর আবদুল কাদের সিদ্দিকী: বীর উত্তম; প্রবীণ রাজনীতিবিদ
২. জনাব আ স ম আব্দুর রব: প্রাক্তন মন্ত্রী; প্রবীণ রাজনীতিবিদ; মুক্তিযোদ্ধা

নাগরিক উদ্যোক্তা ও বিনিয়োগকারী শক্তি
আহ্বায়ক
জনাব এটিএম জাকারিয়া স্বপন: ফাউন্ডার ও সিইও: Priyo.com; টেক এন্ট্রেপ্রেনার; যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালিতে কাজ করার অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ইঞ্জিনিয়ার।

নাগরিক পাহাড়ি শক্তি
আহ্বায়ক
জনাব জোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় (সন্তু) লারমা: পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) সভাপতি

নাগরিক সাংবাদিক শক্তি
আহ্বায়ক
১. জনাব মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর: মিডিয়া ও উন্নয়নকর্মী
২. জনাব সৈয়দ আবুল মকসুদ: গবেষক, প্রাবন্ধিক ও কলাম লেখক

নাগরিক শিল্প ব্যবসায়ী শক্তি
আহ্বায়ক
১. জনাব সৈয়দ মনজুর এলাহী: ব্যবসায়ী নেতা ও এপেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান; তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা
২. জনাব কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ: সভাপতি, FBCCI; ফাউন্ডার চেয়ারম্যান: স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেড
৩. জনাব মেজর (অব:) আবদুল মান্নান: সাবেক মন্ত্রী; চেয়ারম্যান, বাংলালায়ন কমিউনিকেশান্স লিমিটেড (সিনিয়ার)
৪. জনাব আতিকুল ইসলাম: সভাপতি, BGMEA

নাগরিক আইনজীবী শক্তি
আহ্বায়ক
১. ড. কামাল হোসেন: গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের প্রণেতা; সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী
২. ব্যারিস্টার রফিক -উল -হক: জ্যেষ্ঠ আইনজীবী, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট; সমাজসেবক
৩. ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ: বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির প্রাক্তন সভাপতি
৪. প্রফেসর ড. শাহদীন মালিক: আইনজীবী, সুপ্রিম কোর্ট এবং অধ্যাপক, স্কুল অফ ল, ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি
৫. প্রফেসর ড. আসিফ নজরুল: অধ্যাপক, আইন বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

নাগরিক ওলামা শক্তি
আহ্বায়ক
১. আল্লামা আহমেদ শফি: হেফাজতে ইসলামের আমীর
২. হাফেজ মুহাম্মদ জুনায়েদ বাবুনগরী: হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব
৩. আল্লামা ফরিদ উদ্দিন মাসউদ: ইসলাহুল মুসলিমিন বাংলাদেশের সভাপতি ও ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠের খতিব
৪. ড. মুহাম্মদ আবদুল মুনিম খান: বিশ্ববিদ্যালয়য়ের সহযোগী অধ্যাপক

নিম্ললিখিত ফোরামগুলো অ্যাডভাইসারি কাউন্সিলের (Advisory Council) মাধ্যমে দলের সাথে যুক্ত হবে:

নাগরিক অর্থনীতি ফোরাম
আহ্বায়ক
১. ড. আকবর আলি খান: অর্থনীতিবিদ, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা
২. অর্থনীতিবিদ ড. হোসেন জিল্লুর রহমান: তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা
৩. অর্থনীতিবিদ প্রফেসর ড. আবুল বারাকাত: মুক্তিযোদ্ধা; ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ও প্রাক্তন চেয়ারম্যান; জনতা ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান; বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সভাপতি।
৪. প্রফেসর মামুনুর রশিদ: ভাইস প্রেসিডেন্ট, BD Ventures Limited; প্রাক্তন ডিরেক্টার, BRAC Business School; প্রাক্তন সিইও, সিটি ব্যাংক লিমিটেড
৫. প্রফেসর আনু মুহাম্মদ: অর্থনীতিবিদ ও অধ্যাপক, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

নাগরিক বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও শিক্ষা ফোরাম
আহ্বায়ক
১. প্রফেসর ড. সিদ্দিক-ই- রাব্বানী: ফাউন্ডিং চেয়ারপার্সন, ডিপার্টমেন্ট অফ বায়োমেডিকাল ফিজিক্স অ্যান্ড টেকনোলজি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়; বাংলাদেশ একাডেমী অফ সায়েন্স কর্তৃক গোল্ড মেডেল প্রাপ্ত বিজ্ঞানী
২. ড. মাহবুব মজুমদার: সহযোগী অধ্যাপক, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়; বাংলাদেশ গণিত দলের কোচ।

নাগরিক তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ফোরাম
আহ্বায়ক
১. জনাব এটিএম জাকারিয়া স্বপন: ফাউন্ডার ও সিইও: Priyo.com; টেক এন্ট্রেপ্রেনার; যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালিতে কাজ করার অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ইঞ্জিনিয়ার।
২. ড. রাগিব হাসান: Assistant Professor, Department of Computer and Information Sciences, University of Alabama at Birmingham; প্রতিষ্ঠাতা, শিক্ষক.কম
৩. জনাব তামিম শাহরিয়ার সুবিন: ম্যানেজিং ডিরেক্টার, মুক্তসফট (Muktosoft) লিমিটেড
৪. জনাব হাসিন হায়দার: ফাউন্ডার, Leevio
৫. জনাব শাহরিয়ার রউফ নাফি: সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার, Google; বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়য়ের প্রাক্তন শিক্ষক; আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াড ২০০৫ এ অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশ গণিত দলের সদস্য
৬. জনাব মাহবুবুল হাসান শান্ত: বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়য়ের প্রাক্তন শিক্ষক; আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াড ২০০৫ এ অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশ গণিত দলের সদস্য
৭. জনাব তাহমিদ-উল-ইসলাম রাফি: সিইও, দ্বিমিক কম্পিউটিং স্কুল; আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াড ২০০৫ এ অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশ গণিত দলের সদস্য

নাগরিক জাতীয় সম্পদ রক্ষা ফোরাম
আহ্বায়ক
১. প্রকৌশলী শেখ মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ: তেল-গাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির আহ্বায়ক
২. প্রফেসর আনু মুহাম্মদ: অর্থনীতিবিদ ও অধ্যাপক, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়; তেল-গাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্যসচিব

নাগরিক সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ফোরাম
আহ্বায়ক
১. অর্থনীতিবিদ প্রফেসর ড. আবুল বারাকাত: মুক্তিযোদ্ধা; ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ও প্রাক্তন চেয়ারম্যান; জনতা ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান; বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সভাপতি
২. জনাব জোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় (সন্তু) লারমা: পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) সভাপতি

নাগরিক নারী অধিকার ফোরাম
আহ্বায়ক
ব্যারিস্টার সারা হোসেন: আইনজীবী ও মানবাধিকার কর্মী

নাগরিক শিল্প, সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য ফোরাম
আহ্বায়ক
১. জনাব আইয়ুব বাচ্চু: সঙ্গীতজ্ঞ, গায়ক, ব্যান্ড দল LRBর প্রধান
২. জনাব মাহমুদুজ্জামান বাবু: গায়ক ও সংস্কৃতিকর্মী
৩. জনাব বাপ্পা মজুমদার: সঙ্গীতজ্ঞ ও গায়ক

নাগরিক শক্তির জেলা ভিত্তিক অঙ্গ সংগঠন

চট্টগ্রাম জেলা নাগরিক শক্তি
আহ্বায়ক
অর্থনীতিবিদ ড. হোসেন জিল্লুর রহমান: তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা

নারায়ণগঞ্জ জেলা নাগরিক শক্তি
আহ্বায়ক
জনাব রফিউর রাব্বি: সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব; সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের আহ্বায়ক

নাগরিক শক্তির প্রতীক হবে “বই”।

মূলমন্ত্র হবে “জ্ঞানের আলোয় উন্নত বাংলাদেশ”।

রেফরেন্স
১. নাগরিক শক্তি : সংগঠন (Organizaion of Nagorik Shakti)
২. বাংলাদেশ রাষ্ট্রের মূল লক্ষ্য প্রতিষ্ঠায় নাগরিক শক্তি
৩. Nagorik Shakti And The Story Of Bangladesh

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s