আজকের উপলব্ধিতে বাংলাদেশ (২/৮/১৪)

1.বাংলাদেশের রাজনীতির দৃশ্যপট পাল্টে যাচ্ছে।
এলাকায় এলাকায় দুর্নীতিপরায়ণ এবং সন্ত্রাসীদের গডফাদার সাংসদদের কর্তৃত্ব কমছে। অন্যদিকে স্থানীয় প্রশাসনগুলোর কর্তৃত্ব বাড়ছে।

 

  • সাংসদদের কেউ কেউ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ভয়ে হসপিটালে আশ্রয় নিচ্ছেন (যেমন কক্সবাজারের সাংসদ বদি)।
  • অনেকেই আছেন প্রচন্ড চাপে (যেমন – নারায়ণগঞ্জের সাংসদ গডফাদার শামীম ওসমান নূর হোসেনের সাথে ফোনে কথোপকথন ফাঁস হওয়ার পর থেকে ফোনে কথা বলতেই ভয় পান!)
  • কেউ মামলা সামলাতে হিমশিম খাচ্ছেন  (যেমন – ফেনীর সাংসদ অস্ত্র মামলার আসামী নিজাম হাজারী এবং বিথার হত্যা মামলায় অভিযুক্ত খুলনার সাংসদ মিজানুর রহমান)।
  • কেউ দুর্নীতি দমন কমিশনের মামলার ভয়ে আছেন (যেমন ২০০০ কোটি টাকার উপর অবৈধ সম্পদের মালিক রাজশাহী-৪ আসনের সাংসদ এনামুল হক)।

অনেকগুলো এলাকায় স্থানীয় সাংসদদের প্রভাব নেই বললেই চলে। বরং এলাকার জনগণ সাংসদদের গ্রেপ্তারের অপেক্ষায় রয়েছেন।   

2.অনশনের মানুষ ও ক্ষমতার বিকার: প্রফেসর আনু মুহাম্মদ (prothom-alo.com)

3.সংঘাত নয়, সমঝোতাই প্রত্যাশিত: ড. বদিউল আলম মজুমদার (prothom-alo.com)

4.নাগরিক শক্তির যে কোন সদস্য দলের মেম্বার থেকে ধীরে ধীরে নিজ যোগ্যতায় শীর্ষপদে যেতে পারবেন এবং জনগণের মান্ডেট নিয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী কিংবা রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হতে পারবেন।  

ভারতে এক সময়কার চা বিক্রেতা মাত্র কিছুদিন আগে দেশের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন।
বাংলাদেশেও ভবিষ্যতের কোন এক সময় অনুরূপ কাহিনী রচিত হবে।

দলের প্রতিটি পর্যায়ে গণতন্ত্রের চর্চা থাকবে, জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা হবে।
নির্দিষ্ট সময় অন্তর দলের প্রতিটি পদের জন্য দলের অভ্যন্তরে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে এবং নির্বাচনে জয়ী হয়ে নেতারা ধীরে ধীরে দলে উপরের দিকে উঠে আসবেন।
পারিবারিকভাবে দলের শীর্ষ নেতৃত্ব দখল করে রাখার সংস্কৃতির অবসান ঘটবে।

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাবেক সাংসদ তানজিম আহমেদ সোহেল তাজ, মাহী বি. চৌধুরী, ব্যারিস্টার আন্দালিব রহমান পার্থদের মত আদর্শবান তরুণ নেতারা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

আমরা আদর্শবান দক্ষ যোগ্য তরুণ নেতাদের দেখতে চাই। 

সম্ভবনাময় তরুণ নেতাদের প্রজেক্টারে প্রেসেন্টেশানের সুযোগ দেওয়া হবে। ইন্টারভিউ নেওয়া হবে। সময় নিয়ে লিডারশীপ স্কিলস গ্রো করা হবে। নাগরিক সমাজের সম্মানিত ব্যক্তিরা এবং প্রাজ্ঞ রাজনীতিবিদরা তত্ত্বাবধানে থাকবেন।

তবে নির্বাচনের আগে তৃণমূল থেকে নাম প্রস্তাব হতে হবে। জনপ্রিয়তা গ্রহণযোগ্যতা যাচাই করে দেখা হবে।

5.যখন তখন গুলি করাই যার কাজ (prothom-alo.com)

6.বাল্য বিবাহ, নারী নির্যাতন ও পাচার, এসিড সন্ত্রাস রোধ, যৌতুক প্রথা মুক্ত দেশ গড়ে তোলায় এবং নারী অধিকার ও মর্যাদা প্রতিষ্ঠায় অগ্রগতি

নিয়ামতপুরে যৌতুক আদায়ের অভিযোগে আটক ৩ (banglanews24.com)

7.দোহারে পদ্মা ভাঙন রোধের দাবিতে নাগরিক ফোরামের মানববন্ধন (banglanews24.com)
– পদ্মা ভাঙন রোধে স্থায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

8.“অবৈধ অস্ত্রমুক্ত বাংলাদেশ” গড়ার পথে অগ্রগতি

বাংলাদেশের কোন নাগরিকের কাছে অবৈধ অস্ত্র – মেনে নেওয়া হবে না।
দেশের প্রত্যেকটি অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার করা হবে।
আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা এই লক্ষ্যকে সামনে রেখে কাজ করছেন।

গাজীপুরে অস্ত্রসহ এক ব্যক্তি আটক (banglanews24.com)

9.বাংলা শিল্প সাহিত্য সংস্কৃতির অগ্রযাত্রা

এলআরবির সঙ্গে জুনিয়র এবি (prothom-alo.com)
– জুনিয়র এবি আহনাফ তাজোয়ার আইয়ুবের জন্য শুভকামনা রইল! কোনদিন হয়ত লিড গিটারে তোমার সুরের ঝঙ্কারও শোনা হবে!
[আমার ছোট ভাইয়ের নামও কিন্তু তাজোয়ার!]

নাগরিক শক্তি: সংগঠন

এক্সিকিউটিভ কাউন্সিল (Executive Council)
সেক্রেটারিয়েট (Secretariat)
ন্যাশনাল কাউন্সিল (National Council)
অ্যাডভাইসারি কাউন্সিল (Advisory Council)

এক্সিকিউটিভ কাউন্সিল (Executive Council)

ভাইস প্রেসিডেন্ট (Vice President)
২. ড. কামাল হোসেন: গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের প্রণেতা; সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী
৩. প্রফেসর এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী: সাবেক রাষ্ট্রপতি; সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী; প্রফেসর অফ মেডিসিন
৪. ড. আকবর আলি খান: অর্থনীতিবিদ; তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা
৫. ব্যারিস্টার রফিক -উল -হক: জ্যেষ্ঠ আইনজীবী, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট; সমাজসেবক
৬. প্রফেসর ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী: তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা; উপাচার্য, ইউনিভার্সিটি অফ এশিয়া প্যাসিফিক; সভাপতি, বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটি
৭. আল্লামা আহমেদ শফি: হেফাজতে ইসলামের আমীর

“নাগরিক শক্তি”র আনুষ্ঠানিক আত্নপ্রকাশ ঘোষণার পর উল্লেখিত ব্যক্তিরা দলের ভাইস প্রেসিডেন্টের সম্মান গ্রহণ করবেন।

[জেনারেল সেক্রেটারি এবং কো-জেনারেল সেক্রেটারি হিসেবে দায়িত্বরত ব্যক্তিরা এক্সিকিউটিভ কাউন্সিলের সদস্য হিসেবে বিবেচিত হবেন।]

সেক্রেটারিয়েট (Secretariat)

কো-জেনারেল সেক্রেটারি (Co-general Secretary)
১. অর্থনীতিবিদ ড. হোসেন জিল্লুর রহমান: তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা
২. অর্থনীতিবিদ প্রফেসর ড. আবুল বারাকাত: মুক্তিযোদ্ধা; ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ও প্রাক্তন চেয়ারম্যান; জনতা ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান; বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সভাপতি।
[অর্থনীতিবিদ ড. হোসেন জিল্লুর রহমান এবং অর্থনীতিবিদ প্রফেসর ড. আবুল বারাকাত “নাগরিক অর্থনীতি ফোরাম”এর আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]

জয়েন্ট জেনারেল সেক্রেটারি (Joint General Secretary)
১. জনাব আতিকুল ইসলাম: সভাপতি, BGMEA (সিনিয়ার)
[জনাব আতিকুল ইসলাম “নাগরিক শিল্প ব্যবসায়ী শক্তি”র আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]
২. জনাব মাহমুদুর রহমান মান্না: আহ্বায়ক, নাগরিক ঐক্য (সিনিয়ার)
৩. জনাব মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর: মিডিয়া ও উন্নয়নকর্মী
[জনাব মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর “নাগরিক সাংবাদিক শক্তি”র আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]
৪. জনাব তানজিম আহমেদ সোহেল তাজ: সাবেক সাংসদ ও স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী
৫. জনাব মাহী বি. চৌধুরী: সাবেক সাংসদ
৬. ব্যারিস্টার আন্দালিব রহমান পার্থ: সাবেক সাংসদ
৭. প্রফেসর ড. আসিফ নজরুল: অধ্যাপক, আইন বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
[প্রফেসর ড. আসিফ নজরুল “নাগরিক আইনজীবী শক্তি”র আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]
৮. প্রফেসর আনু মুহাম্মদ: অর্থনীতিবিদ ও অধ্যাপক, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়
[প্রফেসর আনু মুহাম্মদ “নাগরিক জাতীয় সম্পদ রক্ষা ফোরাম” এর আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]
৯. হাফেজ মুহাম্মদ জুনায়েদ বাবুনগরী: হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব
১০. জনাব জোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় (সন্তু) লারমা: পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) সভাপতি

সেক্রেটারি (Secretary)
১. ডাঃ ইমরান এইচ. সরকার: মুখপাত্র, গণজাগরণ মঞ্চ; সংগঠক

“নাগরিক শক্তি”র আনুষ্ঠানিক আত্নপ্রকাশ ঘোষণার পর উল্লেখিত ব্যক্তিরা দলের জেনারেল সেক্রেটারি, কো-জেনারেল সেক্রেটারি, জয়েন্ট জেনারেল সেক্রেটারি এবং সেক্রেটারি হিসেবে নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করবেন।

[সেক্রেটারিয়েটের সদস্যরা সারা দেশে দলের সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনা করবেন।]

ন্যাশনাল কাউন্সিল (National Council)

মেম্বারস (Members)
১. ড. এটিএম শামসূল হুদা: সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার; সাবেক সচিব (সিনিয়ার)
২. ড. সা’দত হুসাইন: সাবেক মন্ত্রী পরিষদ সচিব; পাবলিক সার্ভিস কমিশন (পিএসসি) র সাবেক চেয়ারম্যান (সিনিয়ার)
৩. বঙ্গবীর আবদুল কাদের সিদ্দিকী: বীর উত্তম; প্রবীণ রাজনীতিবিদ (সিনিয়ার)
৪. জনাব আ স ম আব্দুর রব: প্রাক্তন মন্ত্রী; প্রবীণ রাজনীতিবিদ; মুক্তিযোদ্ধা (সিনিয়ার)
৫. ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ: বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির প্রাক্তন সভাপতি (সিনিয়ার)
৬. জনাব কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ: সভাপতি, FBCCI; ফাউন্ডার চেয়ারম্যান: স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেড (সিনিয়ার)
৭. প্রফেসর ড. মুহম্মদ ইব্রাহীম: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়য়ের পদার্থবিজ্ঞানের অধ্যাপক; “বিজ্ঞান সাময়িকী”র প্রতিষ্ঠাতা; এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টার, Center for Mass Education in Science (CMES) (সিনিয়ার)
৮. প্রফেসর ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল: লেখক; বিভাগীয় প্রধান, ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়; সহ-সভাপতি, বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটি (সিনিয়ার)
৯. ড. ফেরদৌস আহমেদ কোরেশী: প্রবীণ রাজনীতিবিদ (সিনিয়ার)
১০. জনাব নূরে আলম সিদ্দিকী: প্রবীণ রাজনীতিবিদ; মুক্তিযুদ্ধের সময়কার স্বাধীন বাংলা সংগ্রাম পরিষদের অবিসংবাদিত নেতা (সিনিয়ার)
১১. জনাব মেজর (অব:) আবদুল মান্নান: সাবেক মন্ত্রী; চেয়ারম্যান, বাংলালায়ন কমিউনিকেশান্স লিমিটেড (সিনিয়ার)
১২. অধ্যাপক ড. আবু সাইয়িদ: সাবেক মন্ত্রী; প্রবীণ রাজনীতিবিদ (সিনিয়ার)
১৩. জনাব খোন্দকার ইব্রাহীম খালেদঃ ব্যাংকার; সাবেক ডেপুটি গভর্নর, বাংলাদেশ ব্যাংক (সিনিয়ার)
১৪. জনাব রফিউর রাব্বি: সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব; সংগঠক; সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের আহ্বায়ক
[ন্যাশনাল কাউন্সিলের পাশাপাশি জনাব রফিউর রাব্বি “নারায়ণগঞ্জ জেলা নাগরিক শক্তি”র আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]
১৫. প্রফেসর ড. শাহদীন মালিক: আইনজীবী, সুপ্রিম কোর্ট এবং অধ্যাপক, স্কুল অফ ল, ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি
[প্রফেসর ড. শাহদীন মালিক “নাগরিক আইনজীবী শক্তি”র আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]
১৬. জনাব সৈয়দ আবুল মকসুদ: গবেষক, প্রাবন্ধিক ও কলাম লেখক
[জনাব সৈয়দ আবুল মকসুদ “নাগরিক সাংবাদিক শক্তি”র আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।]
১৭. প্রফেসর ড. সিদ্দিক-ই-রাব্বানী: ফাউন্ডিং চেয়ারপার্সন, ডিপার্টমেন্ট অফ বায়োমেডিকাল ফিজিক্স অ্যান্ড টেকনোলজি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়; বাংলাদেশ একাডেমী অফ সায়েন্স কর্তৃক গোল্ড মেডেল প্রাপ্ত বিজ্ঞানী
১৮. প্রফেসর ড. মোহাম্মদ কায়কোবাদ: অধ্যাপক, বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়; ফেলো, বাংলাদেশ একাডেমী অফ সায়েন্সেস; বাংলাদেশে প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা এবং গণিত অলিম্পিয়াড সূচনার পথিকৃৎ
১৯. প্রফেসর মামুনুর রশিদ: ভাইস প্রেসিডেন্ট, BD Ventures Limited; প্রাক্তন ডিরেক্টার, BRAC Business School; প্রাক্তন সিইও, সিটি ব্যাংক লিমিটেড
২০. ড. তুহিন মালিক: আইনজীবী,  সুপ্রিম কোর্ট
২১. জনাব এস এম আকরাম: সাবেক সাংসদ
২২. প্রফেসর ড. এম এম আকাশ: প্রফেসর, অর্থনীতি বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

“নাগরিক শক্তি”র আনুষ্ঠানিক আত্নপ্রকাশ ঘোষণার পর উল্লেখিত ব্যক্তিরা ন্যাশনাল কাউন্সিলে মেম্বার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

[ন্যাশনাল কাউন্সিলের মেম্বার এবং এসোসিয়েটদের ভোটে একজন স্পীকার (Speaker) এবং একজন ডেপুটি স্পীকার (Deputy Speaker) নির্বাচিত হবেন।
Speaker এবং Deputy Speaker ন্যাশনাল কাউন্সিলের মিটিংগুলো পরিচালনা করবেন।]

[প্রেসিডেন্ট, এক্সিকিউটিভ প্রেসিডেন্ট এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট এর সমন্বয় সরকারের Executive Division এর সাথে তুলনীয় হলে
ন্যাশনাল কাউন্সিল (National Council) সরকারের Legislative Division (আইনসভা) এর সাথে তুলনীয়।]

[ন্যাশনাল কাউন্সিলের মেম্বার এবং এসোসিয়েটরা নিজ নিজ আগ্রহ, দক্ষতা অনুসারে কাজের ফোকাস বেছে নেবেন
এবং সম্পর্কিত দলের ফোরামের সাথে নিজেকে যুক্ত করবেন অথবা নিজেই একটি ফোরাম গঠন করবেন।]

অ্যাডভাইসারি কাউন্সিল (Advisory Council)

অ্যাডভাইসারস (Advisors)
১. Professor ড. আতাউল করিম: Provost and Executive Vice Chancellor, University Of Massachusetts Dartmouth; Fellow, the Optical Society of America; Applied Optics এ গত ৫০ বছরে সবচেয়ে বেশি অবদান রাখা বিশ্বের ৫০ জন গবেষকের একজন; বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত ১৯টি টেক্সটবইয়ের লেখক; গত ১৬ বছর ধরে ঢাকায় অনুষ্ঠিত ICCITর Conference Chair
২. Professor ইকবাল কাদির: Professor of the Practice of Development and Entrepreneurship, MIT; Founder and Director, Legatum Center at MIT; প্রতিষ্ঠাতা, গ্রামীণফোন; Wharton School কর্তৃক ২০০৬ সালে প্রকাশিত ১২৫ জন Influential People and Ideas এর একজন
৩. প্রফেসর ড. সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়য়ের এমিরেটাস প্রফেসর
৪. জনাব সৈয়দ মনজুর এলাহী: ব্যবসায়ী নেতা ও এপেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান; তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা
৫. অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সাইয়িদ: চেয়ারম্যান, বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র; লেখক; টিভি ব্যক্তিত্ব; রামন মাগগসে পুরস্কার, একুশে পদক এবং বাংলা একাডেমী পুরস্কার প্রাপ্ত
৬. ব্যারিস্টার সারা হোসেন: আইনজীবী ও মানবাধিকার কর্মী

[বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বিশ্ববিদ্যালয় এবং খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত বাংলাদেশীরা Advisory Council এ অ্যাডভাইসার হিসেবে যুক্ত হয়ে দেশের উন্নতির লক্ষ্যে দিক নির্দেশনা প্রণয়ন করবেন।]

“নাগরিক শক্তি”র আনুষ্ঠানিক আত্নপ্রকাশ ঘোষণার পর উল্লেখিত ব্যক্তিরা অ্যাডভাইসারি কাউন্সিলে অ্যাডভাইসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

পার্টি উইঙ্গস – দলীয় অঙ্গ সংগঠন

[প্রত্যেক অঙ্গ সংগঠন এবং ফোরামকে নিজ নিজ গঠনপ্রণালী, কার্যবিধি, কর্মপরিধি নির্ধারণ করার ক্ষেত্রে পূর্ণ স্বাধীনতা দেওয়া হবে। এতে অঙ্গ সংগঠন এবং ফোরামের সদস্যরা empowered অনুভব করবেন এবং লিডারশীপ স্কিলস ডেভেলাপ করার সুযোগ পাবেন।
প্রত্যেক অঙ্গ সংগঠন এবং ফোরামের সদস্যরা নিজেরা একটি কমিটি গঠন করে নিজ নিজ গঠনপ্রণালী, কার্যবিধি, কর্মপরিধি নির্ধারণ করবেন।
তবে অঙ্গ সংগঠন এবং ফোরামগুলোকে নাগরিক শক্তির মূলনীতিগুলো (গণতান্ত্রিক আচরণ, জবাবদিহিতা, জাতি ধর্ম বর্ণ নারী পুরুষ নির্বিশেষে সবার স্বার্থ সংরক্ষণ ইত্যাদি) মেনে চলতে হবে এবং
সেক্রেটারিয়েট, ন্যাশনাল কাউন্সিল ও অ্যাডভাইসারি কাউন্সিলের কাছে নিয়মিত রিপোর্ট করতে হবে।
কোন একদিন অঙ্গ সংগঠনগুলোর একজন সদস্য বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী এবং অপর একজন সদস্য বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মনোনীত হবেন।]

নাগরিক তরুণ শক্তি
আহ্বায়ক
১. জনাব মাহী বি. চৌধুরী: সাবেক সাংসদ
২. জনাব তানজিম আহমেদ সোহেল তাজ: সাবেক সাংসদ ও স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী
৩. ব্যারিস্টার আন্দালিব রহমান পার্থ: সাবেক সাংসদ
৪. ড. রাগিব হাসান: Assistant Professor, Department of Computer and Information Sciences, University of Alabama at Birmingham; প্রতিষ্ঠাতা, শিক্ষক.কম
৫. ড. মাহবুব মজুমদার: সহযোগী অধ্যাপক, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়;  বাংলাদেশ গণিত দলের কোচ
৬. জনাব তামিম শাহরিয়ার সুবিন: ম্যানেজিং ডিরেক্টার, মুক্তসফট (Muktosoft) লিমিটেড; সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার
৭. ড. ফারসীম মান্নান মোহাম্মদী: বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (BUET) শিক্ষক; বিজ্ঞান লেখক
৮. জনাব মাহমুদুজ্জামান বাবু: গায়ক ও সংস্কৃতিকর্মী
৯. জনাব মুসা ইব্রাহীম: এভারেস্ট জয়ী প্রথম বাংলাদেশী
১০. জনাব শাহরিয়ার রউফ নাফি: সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার, Google; বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়য়ের (BUET) প্রাক্তন শিক্ষক; আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াড ২০০৫ এ অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশ গণিত দলের সদস্য
১১. জনাব মোঃ মাহবুবুল হাসান (শান্ত): বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়য়ের (BUET) প্রাক্তন শিক্ষক; আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াড ২০০৫ এ অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশ গণিত দলের সদস্য
১২. জনাব তাহমিদ-উল-ইসলাম রাফি: সিইও, দ্বিমিক কম্পিউটিং স্কুল; সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার; আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াড ২০০৫ এ অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশ গণিত দলের সদস্য
১৩. জনাব মোঃ কায়সার আলী: সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার, Samsung R&D Center, Bangladesh

[নাগরিক শক্তির অঙ্গ সংগঠনগুলোর মাঝে “নাগরিক তরুণ শক্তি”র উপর সবচেয়ে বেশি ফোকাস থাকবে।
বাংলাদেশের ৯০ ভাগের উপর তরুণ নাগরিক শক্তির সাথে থাকবেন। এই তরুণদের সংগঠিত করা, দিক নির্দেশনা দেওয়ার দায়িত্ব “নাগরিক তরুণ শক্তি”কেই নিতে হবে।]

নাগরিক ছাত্র শক্তি
আহ্বায়ক
১. লাকী আক্তার: কর্মী, গণজাগরণ মঞ্চ; বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক
২. নুহাশ হুমায়ূন: ছাত্র, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগ, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়
৩. তারিক আদনান মুন: যুক্তরাষ্ট্রের Harvard University তে অধ্যয়নরত বাংলাদেশী ছাত্র (গণিত ও কম্পিউটার বিজ্ঞান মেজর); আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াডে বাংলাদেশের পক্ষে ব্রোঞ্জ পদক জয়ী
৪. হক মুহম্মদ ইশফাক: যুক্তরাষ্ট্রের Stanford University তে অধ্যয়নরত বাংলাদেশী ছাত্র (গণিত ও বায়োলজি মেজর); আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াড ২০০৮, ২০০৯ ও ২০১০ এ অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশ গণিত দলের সদস্য
[দেশের প্রত্যেক বিশ্ববিদ্যালয় – কলেজ – মাদ্রাসায় সবার পছন্দের কয়েকজন আদর্শ ছাত্রছাত্রীকে আহ্বায়ক হিসেবে মনোনয়ন দেওয়া হবে।
পাশাপাশি, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অধ্যয়নরত বাংলাদেশী ছাত্রছাত্রীদের আহ্বায়ক হিসেবে মনোনয়ন দেওয়া হবে। নাগরিক শক্তি বিভিন্ন দেশে অধ্যয়নরত বাংলাদেশী ছাত্রছাত্রীদের সাথে দেশের সেতুবন্ধন হিসেবে কাজ করবে।]

নাগরিক গণজাগরণ মঞ্চ
আহ্বায়ক
১. ডাঃ ইমরান এইচ. সরকার: মুখপাত্র, গণজাগরণ মঞ্চ
২. লাকী আক্তার: কর্মী, গণজাগরণ মঞ্চ; বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক
৩. জনাব বাপ্পাদিত্ত বসু: কর্মী, গণজাগরণ মঞ্চ; বাংলাদেশ ছাত্রমৈত্রীর সভাপতি

নাগরিক মুক্তিযোদ্ধা শক্তি
আহ্বায়ক
১. বঙ্গবীর আবদুল কাদের সিদ্দিকী: বীর উত্তম; প্রবীণ রাজনীতিবিদ
২. জনাব আ স ম আব্দুর রব: প্রাক্তন মন্ত্রী; প্রবীণ রাজনীতিবিদ; মুক্তিযোদ্ধা

নাগরিক উদ্যোক্তা ও বিনিয়োগকারী শক্তি
আহ্বায়ক
জনাব এটিএম জাকারিয়া স্বপন: ফাউন্ডার ও সিইও: Priyo.com; টেক এন্ট্রেপ্রেনার; যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালিতে কাজ করার অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ইঞ্জিনিয়ার।

নাগরিক পাহাড়ি শক্তি
আহ্বায়ক
জনাব জোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় (সন্তু) লারমা: পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) সভাপতি

নাগরিক সাংবাদিক শক্তি
আহ্বায়ক
১. জনাব মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর: মিডিয়া ও উন্নয়নকর্মী
২. জনাব সৈয়দ আবুল মকসুদ: গবেষক, প্রাবন্ধিক ও কলাম লেখক

নাগরিক শিল্প ব্যবসায়ী শক্তি
আহ্বায়ক
১. জনাব সৈয়দ মনজুর এলাহী: ব্যবসায়ী নেতা ও এপেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান; তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা
২. জনাব কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ: সভাপতি, FBCCI; ফাউন্ডার চেয়ারম্যান: স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেড
৩. জনাব মেজর (অব:) আবদুল মান্নান: সাবেক মন্ত্রী; চেয়ারম্যান, বাংলালায়ন কমিউনিকেশান্স লিমিটেড (সিনিয়ার)
৪. জনাব আতিকুল ইসলাম: সভাপতি, BGMEA

নাগরিক আইনজীবী শক্তি
আহ্বায়ক
১. ড. কামাল হোসেন: গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের প্রণেতা; সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী
২. ব্যারিস্টার রফিক -উল -হক: জ্যেষ্ঠ আইনজীবী, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট; সমাজসেবক
৩. ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ: বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির প্রাক্তন সভাপতি
৪. প্রফেসর ড. শাহদীন মালিক: আইনজীবী, সুপ্রিম কোর্ট এবং অধ্যাপক, স্কুল অফ ল, ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি
৫. প্রফেসর ড. আসিফ নজরুল: অধ্যাপক, আইন বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
৬. ড. তুহিন মালিক: আইনজীবী,  সুপ্রিম কোর্ট
৭. ব্যারিস্টার আন্দালিব রহমান পার্থ: সাবেক সাংসদ

নাগরিক ওলামা শক্তি
আহ্বায়ক
১. আল্লামা আহমেদ শফি: হেফাজতে ইসলামের আমীর
২. হাফেজ মুহাম্মদ জুনায়েদ বাবুনগরী: হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব
৩. আল্লামা ফরিদ উদ্দিন মাসউদ: ইসলাহুল মুসলিমিন বাংলাদেশের সভাপতি ও ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠের খতিব
৪. ড. মুহাম্মদ আবদুল মুনিম খান: বিশ্ববিদ্যালয়য়ের সহযোগী অধ্যাপক

নিম্ললিখিত ফোরামগুলো অ্যাডভাইসারি কাউন্সিলের (Advisory Council) মাধ্যমে দলের সাথে যুক্ত হবে:

নাগরিক অর্থনীতি ফোরাম
আহ্বায়ক
১. ড. আকবর আলি খান: অর্থনীতিবিদ, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা
২. অর্থনীতিবিদ ড. হোসেন জিল্লুর রহমান: তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা
৩. অর্থনীতিবিদ প্রফেসর ড. আবুল বারাকাত: মুক্তিযোদ্ধা; ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ও প্রাক্তন চেয়ারম্যান; জনতা ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান; বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সভাপতি।
৪. প্রফেসর মামুনুর রশিদ: ভাইস প্রেসিডেন্ট, BD Ventures Limited; প্রাক্তন ডিরেক্টার, BRAC Business School; প্রাক্তন সিইও, সিটি ব্যাংক লিমিটেড
৫. প্রফেসর ড. এম এম আকাশ: প্রফেসর, অর্থনীতি বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
৬. প্রফেসর আনু মুহাম্মদ: অর্থনীতিবিদ ও অধ্যাপক, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

নাগরিক বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও শিক্ষা ফোরাম
আহ্বায়ক
১. প্রফেসর ড. সিদ্দিক-ই- রাব্বানী: ফাউন্ডিং চেয়ারপার্সন, ডিপার্টমেন্ট অফ বায়োমেডিকাল ফিজিক্স অ্যান্ড টেকনোলজি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়; বাংলাদেশ একাডেমী অফ সায়েন্স কর্তৃক গোল্ড মেডেল প্রাপ্ত বিজ্ঞানী
২. প্রফেসর ড. মুহম্মদ ইব্রাহীম: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়য়ের পদার্থবিজ্ঞানের অধ্যাপক; “বিজ্ঞান সাময়িকী”র প্রতিষ্ঠাতা; এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টার, Center for Mass Education in Science (CMES)
৩. প্রফেসর ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল: লেখক; বিভাগীয় প্রধান, ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়; সহ-সভাপতি, বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটি
৪. প্রফেসর ড. মোহাম্মদ কায়কোবাদ: অধ্যাপক, বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়; ফেলো, বাংলাদেশ একাডেমী অফ সায়েন্সেস; বাংলাদেশে প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা এবং গণিত অলিম্পিয়াড সূচনার পথিকৃৎ
৫. ড. মাহবুব মজুমদার: সহযোগী অধ্যাপক, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়; বাংলাদেশ গণিত দলের কোচ।

নাগরিক তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ফোরাম
আহ্বায়ক
১. প্রফেসর ড. মোহাম্মদ কায়কোবাদ: অধ্যাপক, বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়; ফেলো, বাংলাদেশ একাডেমী অফ সায়েন্সেস; বাংলাদেশে প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা এবং গণিত অলিম্পিয়াড সূচনার পথিকৃৎ
২. জনাব এটিএম জাকারিয়া স্বপন: ফাউন্ডার ও সিইও: Priyo.com; টেক এন্ট্রেপ্রেনার; যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালিতে কাজ করার অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ইঞ্জিনিয়ার।
৩. ড. রাগিব হাসান: Assistant Professor, Department of Computer and Information Sciences, University of Alabama at Birmingham; প্রতিষ্ঠাতা, শিক্ষক.কম
৪. জনাব তামিম শাহরিয়ার সুবিন: ম্যানেজিং ডিরেক্টার, মুক্তসফট (Muktosoft) লিমিটেড; সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার
৫. জনাব হাসিন হায়দার: ফাউন্ডার, Leevio; সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার
৬. জনাব শাহরিয়ার রউফ নাফি: সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার, Google; বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়য়ের প্রাক্তন শিক্ষক; আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াড ২০০৫ এ অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশ গণিত দলের সদস্য
৭. জনাব মাহবুবুল হাসান শান্ত: বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়য়ের প্রাক্তন শিক্ষক; আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াড ২০০৫ এ অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশ গণিত দলের সদস্য
৮. জনাব তাহমিদ-উল-ইসলাম রাফি: সিইও, দ্বিমিক কম্পিউটিং স্কুল; সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার; আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াড ২০০৫ এ অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশ গণিত দলের সদস্য

নাগরিক জাতীয় সম্পদ রক্ষা ফোরাম
আহ্বায়ক
১. প্রকৌশলী শেখ মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ: তেল-গাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির আহ্বায়ক
২. প্রফেসর আনু মুহাম্মদ: অর্থনীতিবিদ ও অধ্যাপক, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়; তেল-গাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্যসচিব

নাগরিক সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ফোরাম
আহ্বায়ক
১. অর্থনীতিবিদ প্রফেসর ড. আবুল বারাকাত: মুক্তিযোদ্ধা; ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ও প্রাক্তন চেয়ারম্যান; জনতা ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান; বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সভাপতি
২. প্রফেসর ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল: লেখক; বিভাগীয় প্রধান, ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়; সহ-সভাপতি, বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটি
৩. জনাব জোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় (সন্তু) লারমা: পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) সভাপতি

নাগরিক নারী অধিকার ফোরাম
আহ্বায়ক
ব্যারিস্টার সারা হোসেন: আইনজীবী ও মানবাধিকার কর্মী

নাগরিক শিল্প, সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য ফোরাম
আহ্বায়ক
১. অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সাইয়িদ: চেয়ারম্যান, বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র; লেখক; টিভি ব্যক্তিত্ব; রামন মাগগসে পুরস্কার, একুশে পদক এবং বাংলা একাডেমী পুরস্কার প্রাপ্ত
২. জনাব আইয়ুব বাচ্চু: সঙ্গীতজ্ঞ; গায়ক; ব্যান্ড দল LRBর প্রধান
৩. জনাব আফজাল হোসেন: বিশিষ্ট অভিনেতা
৪. জনাব মাহমুদুজ্জামান বাবু: গায়ক ও সংস্কৃতিকর্মী
৫. জনাব বাপ্পা মজুমদার: সঙ্গীতজ্ঞ ও গায়ক

নাগরিক শক্তির জেলা ভিত্তিক অঙ্গ সংগঠন

চট্টগ্রাম জেলা নাগরিক শক্তি
আহ্বায়ক
অর্থনীতিবিদ ড. হোসেন জিল্লুর রহমান: তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা

নারায়ণগঞ্জ জেলা নাগরিক শক্তি
আহ্বায়ক
জনাব রফিউর রাব্বি: সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব; সংগঠক; সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের আহ্বায়ক

মুন্সিগঞ্জ জেলা নাগরিক শক্তি
আহ্বায়ক
জনাব মাহী বি. চৌধুরী: মুন্সিগঞ্জ-১ আসনের সাবেক সাংসদ

গাজীপুর জেলা নাগরিক শক্তি
আহ্বায়ক
জনাব তানজিম আহমেদ সোহেল তাজ: গাজীপুর-৪ আসনের সাবেক সাংসদ; সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

ভোলা জেলা নাগরিক শক্তি
আহ্বায়ক
ব্যারিস্টার আন্দালিব রহমান পার্থ: ভোলা-১ আসনের সাবেক সাংসদ

নাগরিক শক্তির প্রতীক হবে “বই”।

মূলমন্ত্র হবে “জ্ঞানের আলোয় উন্নত বাংলাদেশ”।

রেফরেন্স
১. নাগরিক শক্তি : সংগঠন (Organizaion of Nagorik Shakti)
২. বাংলাদেশ রাষ্ট্রের মূল লক্ষ্য প্রতিষ্ঠায় নাগরিক শক্তি
৩. Nagorik Shakti And The Story Of Bangladesh

 

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s