Gaining excellence in Education by establishing Center for Learning and Knowledge (জ্ঞান চর্চার কেন্দ্র প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে জ্ঞানের বিকাশ)

 

Johannes Gutenberg

জ্ঞানের বিভিন্ন ক্ষেত্রে দক্ষতা সম্পন্ন ব্যক্তিরা একটি Center এ এসে collaboratively জ্ঞান চর্চা, জ্ঞানের আদান প্রদান করলে এবং জ্ঞান চর্চাকে উৎসাহ দিলে – কি ঘটে – তার দৃষ্টান্ত আমরা ইতিহাসে বারবার দেখেছি।

2000 বছর আগের গ্রীক সভ্যতার Plato, Aristotle [8], Socrates, Pythagoras, Euclid [9] রা জ্ঞান চর্চা করে মানুষের জ্ঞানকে অনেক দূর এগিয়ে দিয়েছিলেন। Alexandria র কথা আমরা সবাই জানি।

1000, 1100, 1200 খ্রিস্টাব্দে Abbasid Caliphate [2] – Baghdad এ House of Wisdom [3] প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। সেই সময়ে জ্ঞানের প্রসার হয়েছিল এই House of Wisdom এ – “Algebra” আর “Algorithm” – শব্দ দুটো এসেছে House of Wisdom এর Scholar-Mathematician “Al-Khwarizmi” (Algorithm) এবং তার লেখা বইএর নাম (Al-jibr – Algebra) থেকে [1]।

তখনকার দিনে জ্ঞান বিকাশের এসব ক্ষেত্রে যা হয়েছিল – তা হল

    • অনেক বইএর একটা লাইব্রেরি তৈরি করা হত – Library of Alexandria [4], House of Wisdom [3] (আমাদের মনে রাখতে হবে – তখনও Gutenberg [5] ছাপাখানা invent করেননি – কাজেই সব বই হাতে লেখা)
    • দেশের Rulers রা উৎসাহ দিতেন, পৃষ্ঠপোষকতা করতেন (Scholar রা বড় স্থাপত্য, ব্রীজ ডিজাইন করে দিতেন)
    • সমাজে Scholar দের value বেশি ছিল – Scholarship এ সবাই উৎসাহ পেতো
    • বিভিন্ন Background এর লোক এসে একত্রিত হয়ে জ্ঞান চর্চা, জ্ঞানের আদান প্রদান, আলোচনা করতো – Creativity র জন্য, নতুন জ্ঞান সৃষ্টির জন্য এটা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

Ancient Greece এ trade এর জন্য Mediterranean এর Port গুলোতে আসতেন বিভিন্ন Background, বিভিন্ন সভ্যতার মানুষরা। তারা আলোচনা করতেন, বিভিন্ন সভ্যতার জ্ঞান আদান প্রদান করতেন (আমাদের মনে রাখতে হবে তখন Communication Technology বলতে কিছু ছিল না – কাজেই এক সভ্যতার অর্জিত জ্ঞান সহজে আরেক সভ্যতায় transfer হত না – Trade and Commerce এর কারণে এক সভ্যতার মানুষ আরেক সভ্যতার মানুষের কাছে যেতেন – পণ্য কেনা বেচা করতে। জ্ঞান আদান প্রদান হত – তখনই)।

আবার Chinese Civilization অনেক বছর পৃথিবী থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে নিজেদের নিয়ে ছিলেন। ফলে Renaissance (Da Vinci, Michelangelo) [6] এবং তার পরবর্তীতে Galileo, Newton, Industrial Revolution এর সময় Europe এ জ্ঞানের যে বিস্ফোরণ ঘটেছিল – তা Chinese দের কাছে এসে পৌঁছায়নি।

এক সভ্যতার জ্ঞান আরেক সভ্যতায় transmit হওয়ার আরেকটা উপায় ছিল Conquest. Alexander The Great [7] যেসব রাজ্য জয় করতেন – সেসব রাজ্যের জ্ঞানও হরণ করে নিতেন!

 

Reference

  1. Muḥammad ibn Mūsā al-Khwārizmī (Wikipedia Entry)
  2. Abbasid Caliphate
  3. House of Wisdom
  4. Library of Alexandria
  5. Johannes Gutenberg
  6. The Renaissance
  7. Alexander the Great
  8. Aristotle
  9. Euclid

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s