আলোচনা সভা – সমাবেশ – উদ্যোগ [২১.১১.১৪]

Large Scale Engineering 

“চলতি মৌসুমেই কৃষকরা খরা সহিষ্ণু এসব ধান আবাদ করতে পারবে। নতুন প্রজাতির এসব ধান থেকে এখন প্রোটিন ও এমাইলোজ সমৃদ্ধ ধানের বীজও পাওয়া যাবে। 

খরা সহ্য করতে পারা ধানের এ জাতগুলো হলো ব্রিধান-৬৫, ব্রিধান-৬৬, ব্রিধান-৬৭, ব্রিধান-৬৮, ব্রিধান-৬৯। জাতীয় বীজ বোর্ডের সভায় গতকাল এ পাঁচটিসহ ইনব্রিড ও হাইব্রিড ধান এবং গম ও আলুর মোট ২২টি জাত অবমুক্ত করা হয়। গবেষণালব্ধ বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণের পর কারিগরি কমিটির দেয়া সুপারিশের ভিত্তিতে নতুন জাতগুলো অনুমোদন পেয়েছে।”


 
Business & Economy
 


 
International Relations

Bangladesh – United States Relations  AmericaInRealization

 

“বাংলাদেশ সফর করবেন মার্কিন সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিশা দেশাই বিসওয়াল। যুক্তরাষ্ট্র পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় শুক্রবার (২১ নভেম্বর) এ তথ্য জানিয়েছে।

ঢাকায় সরকারি উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন নিশা দেশাই। এছাড়া তিনি ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ, সিভিল সোসাইটির প্রতিনিধি এবং শ্রমিক নেতাদেও সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।  এই সফরে কাঠমুন্ডু থেকে নিশা দেশাই ঢাকা পৌঁছবেন।

আগামী ২৩ নভেম্বর রোরবার থেকে ৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত ভারত নোপাল , বাংলাদেশ, উজবেকিস্তান ও সুইজারল্যান্ড সফর করবেন তিনি।

এই সফরে বিশ্ব অর্থনীতিতে আঞ্চলিক অর্থনৈতিক যোগাযোগ এবং দক্ষিণ এশিয়ার ভূমিকা বর্ধিত করার বিষয়ে গুরুত্ব নিয়ে নিশা দেশাই আলোচনা করবেন।

নিশা দেশাই কাঠমুন্ডুতে সার্ক সম্মেলনের পর্যবেক্ষক দেশ যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিত্ব করবেন। এর আগে প্রথমেই তিনি ভারতের রাজধানী দিল্লীতে দুই দেশের আভ্যন্তরীণ  বিষয়ে কথা বলবেন।
মার্কিন সহকারী পররাষ্ট্র মন্ত্রী নিশা দেশাই ঢাকা থেকে তাসখন্দ হয়ে সুইজারল্যান্ডে যাবেন। তাসখন্দে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক এবং বাসিলে  ওএস সিই ও মধ্যএশীয় মিনিস্টারিয়াল বৈঠকে যোগ দেবেন।”

 
বাংলাদেশের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র রাষ্ট্রদূত সামান্থা পাওয়ার।
বাংলাদেশের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র রাষ্ট্রদূত সামান্থা পাওয়ার।
বাংলাদেশের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র রাষ্ট্রদূত সামান্থা পাওয়ার।

জাতিসংঘ পুলিশ বাহিনীর বিষয়ে সিকিউরিটি কাউন্সিলের প্রথম সভায় বাংলাদেশের ভূয়সী প্রশংসা করলেন তিনি।  

বৃহস্পতিবার সিকিউরিটি কাউন্সিলের সভায় প্রথম সভাতেই  শান্তিরক্ষী বাহিনীতে বাংলাদেশের পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের পাঠানোর সিদ্ধান্তের প্রশংসা করে তিনি বলেন, ইতোমধ্যে, সদ্য গঠিত তিনটি জাতিসংঘ পুলিশ ইউনিটে সাড়ে তিনশ বাংলাদেশি এবং নেপালি পুলিশ বাহিনীর সদস্য রয়েছেন। জাতিসংঘের ৫০০ পুলিশ কর্মকর্তার সঙ্গে সাউথ সুদানের নয়টি ক্যাম্পে তারা প্রায় একলাখ গৃহহীনদের সহায়তা করছেন

জাতিসংঘ পুলিশ বাহিনী – মানবাধিকার, বেসামরিক নাগরিকদের নিরাপত্তা এবং স্বচ্ছতায় আইনশৃঙ্খলা, স্থানীয় প্রশাসনে প্রশিক্ষণসহ আরো বৃহত্তর পরিসরে কাজ করতে পারে মত প্রকাশ করে তিনি বলেন, জাতিসংঘ পুলিশ বাহিনীকে অবশ্যই নেতৃত্বের ভূমিকায় আসতে হবে।  

তিনি বলেন, শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে জনসাধারণের নিরাপত্তাই প্রধান ম্যান্ডেট।

মার্কিন রাষ্ট্রদূত সামান্থা পাওয়ারবলেন, বাংলাদেশএবং চীন, ফিনল্যান্ড, মঙ্গোলিয়া, নেপাল এবং রুয়ান্ডা সম্প্রতি জাতিসংঘ বাহিনীতে আরো পুলিশ সদস্য পাঠানোর যে ঘোষণা দিয়েছে, তা খুবই প্রশংসনীয়।”

“যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা প্রক্রিয়া সহজ করা হয়েছে। এখন অনলাইনে সাক্ষাৎকারের সময় নির্ধারণ, এইচএসবিসি ব্যাংকের নির্ধারিত শাখা থেকে ভিসা ফি সংগ্রহ এবং ভিসা প্রক্রিয়া কাজে নিয়োজিত সাইমন সেন্টারের ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট শাখা কার্যালয় থেকে ভিসা সংগ্রহ করা যাবে।

এর ফলে চট্টগ্রামের আবেদনকারীরাও এসব সুবিধা তাঁদের হাতের নাগালে পাচ্ছেন। তাঁরা এইচএসবিসির একটি শাখায় ফি জমা দেওয়ার এবং চট্টগ্রাম নগরের আগ্রাবাদ শেখ মুজিব রোডের সাইমন সেন্টার থেকে ভিসা সংগ্রহের সুযোগ পাবেন।

গতকাল দুপুরে চট্টগ্রাম নগরের জামাল খান এলাকার আমেরিকান কর্নারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। এতে বক্তব্য দেন ঢাকার যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের ডেপুটি চিফ অব মিশন ডেভিড মিলি ও ভাইস কনসুলার ক্যামরুন মিলার্ড। সঞ্চালনায় ছিলেন দূতাবাসের প্রেস চিফ মেরিনা ইয়াসমিন।”


তরুণ প্রজন্ম  #YouthEmpowerment


 

“দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীদের জন্য প্রযুক্তি, চিকিৎসাসহায়ক যন্ত্র ও সাইকেল চুরি ঠেকানোর প্রযুক্তি উদ্ভাবন করে পুরস্কার জিতেছেন শিক্ষার্থীরা। বিজয়ী তিনটি দল আগামী বছরের জানুয়ারি মাসে ভারতের আহমেদাবাদে অনুষ্ঠিত ‘আন্তর্জাতিক মেকারফেস্ট ২০১৫’ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের সুযোগ পাচ্ছে। এ ছাড়া নগদ অর্থ পুরস্কার পেয়েছেন শিক্ষার্থীরা। 
১৮ নভেম্বর থেকে ধানমন্ডির ইএমকে সেন্টারে শুরু হয় যন্ত্রপাতি তৈরির তিন দিনের আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা। 
প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান দখল করেছে ব্রেইল, দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছে হেলথসিস এবং তৃতীয় হয়েছে সাইকেলসেফটি।
ব্রেইল প্রকল্পে কাজ করেছেন ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী জোনায়েদ, সফিউর ও সামিউল। তাঁদের তৈরি গ্লাভসসদৃশ যন্ত্রটি অন্ধদের জন্য বিশেষ সহায়ক হবে।
দ্বিতীয় স্থান অর্জন করা ইন্টুগ্রেভিটি দলের সদস্যরা হলেন সাদমান, রাকিবুল, ফারুক ও ইসাত। তাঁদের হেলথসিস প্রকল্পের মাধ্যমে চিকিৎসা যন্ত্রপাতি সুলভে তৈরি করা যাবে। তৃতীয় স্থানে থাকা বুয়েট খ্যাপা দল তৈরি করেছে বাইসাইকেল চুরি প্রতিরোধক যন্ত্র। ব্লুটুথনির্ভর এই যন্ত্র সাইকেলে লাগানো থাকলে সাইকেলে স্পর্শ করলেই মোবাইলে স্বয়ংক্রিয় বার্তা চলে যায়। 
প্রতিযোগীদের হার্ডওয়্যার তৈরির এই প্রতিযোগিতার সহযোগী হিসেবে এগিয়ে এসেছে তথ্য-প্রযুক্তির বিভিন্ন সংগঠন। সফটওয়্যার ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন ‘বেসিস’ ও ‘বেটারস্টরিজ লিমিটেড’-এর যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত এই হ্যাকাথনে ইএমকে সেন্টার, টেকশপ বিডি, আমরা টেকনলজিস, লেটস লার্নকোডিং, ডায়নামিক হাবস, গিকি সোশ্যাল অ্যাডভান্টেজ, হাইফাই পাবলিক, স্টুডিও ওয়াশ এবং দ্য টেকস্কুল আয়োজক সহযোগী ছিল।
মেক-অ্যা-থনের ফাইনালে ১৩টি দল তাদের প্রযুক্তি উপস্থাপন করে। বিচারকের দায়িত্বে ছিলেন
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োমেডিকেল ও পদার্থ প্রযুক্তি বিভাগের অধ্যাপক ও চেয়ারপারসন সিদ্দিক-ই-রব্বানি, বাংলাদেশ অ্যাটমিক কমিশনের প্রধান বৈজ্ঞানিক অফিসার মুবারক আহমেদ খান, সোলারিকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক দিদার ইসলাম, নর্থ-সাউথ ইউনিভার্সিটির ইলেকট্রিক্যাল এবং কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের অধ্যাপক এম. রোকনুজ্জামান, বেসিসের প্রতিনিধি সামি হাসান এবং এমসিসি লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী আশরাফ আবির।”

“বাংলাদেশে এখন ১০ থেকে ২৪ বছর বয়সী তরুণের সংখ্যা পৌনে পাঁচ কোটি। এর সঙ্গে ২৫ থেকে ৪০ বছর বয়সী যুব জনসংখ্যাকে ধরলে বলা যায় যে জনসংখ্যার তিন ভাগের দুই ভাগই টগবগে তরুণ। ঠিক এ রকম জনসংখ্যা-সুবিধা নিয়েই ১৯৬৫ থেকে ১৯৯০ সালের মধ্যে পূর্ব এশীয় ‘টাইগার’ অর্থনীতির দেশগুলো উন্নতি করেছিল। চীন বিপ্লবের পরের উত্থানও ছিল অনেকটা তরুণদেরই রক্ত ও ঘামের ফসল। 

বাংলাদেশের সাধারণ একজন তরুণ আশা করতে পারেন যে পাঁচ বছরের মধ্যে তিনি কোটিপতি হয়ে যাবেন। অধিকাংশ তরুণের মনেই সীমা ডিঙানোর এমন সংকল্প কম দেশেই দেখা যায়। আরও বড় কথা, কম দেশের মানুষ তা সম্ভব করতে পারে। ছোট ব্যবসাকে বড় করে ফেলার আশা, রিকশাচালকের সন্তানকে উচ্চশিক্ষিত করার স্বপ্ন, কাঁচাবাড়িকে পাকা করার সাধ, অপরের দয়ামুখী অবস্থা থেকে উদ্যোক্তা হওয়ার আত্মবিশ্বাস, কর্মী থেকে নেতা হওয়ার উচ্চাভিলাষ তো আমরা চারপাশেই দেখতে পাই। “




আলোচনা সভা – সমাবেশ – উদ্যোগ

“ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি ও ইউনূস সেন্টারের মধ্যে শিক্ষাবিষয়ক একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটির উপাচার্য আবদুর রব ও ইউনূস সেন্টারের নির্বাহী পরিচালক লামিয়া মোর্শেদ সম্প্রতি এই চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে এর সাফল্য কামনা করতে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন নোবেলজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূস। চুক্তির আওতায় সামাজিক ব্যবসা শিক্ষার প্রসারে প্রতিষ্ঠান দুটি কাজ করবে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ইউনিভার্সিটির সহ-উপাচার্য আবদুল হান্নান চৌধুরী, ব্যবসায় অনুষদের ডিন নজরুল ইসলামসহ প্রতিষ্ঠান দুটির কর্মকর্তারা।”

যুবধারার সভাপতি ওবায়দুর রহমান মৃধার সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন, বিকল্পধারার মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান, যুগ্মমহাসচিব মাহী বি. চৌধুরী, যুবধারার সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আসাদুজ্জামান বাচ্চু, সংগঠনের নেতা জাহাঙ্গীর আলম নিশি, সাইফুল ইসলাম শোভন, আলমগীর কবির মিলু, মোস্তফা সারোয়ার প্রমুখ।  – See more at: http://www.banglanews24.com/beta/fullnews/bn/342657.html#sthash.IV4fYIub.dpuf
“যুবধারার সভাপতি ওবায়দুর রহমান মৃধার সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন, বিকল্পধারার মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান, যুগ্মমহাসচিব মাহী বি. চৌধুরী,যুবধারার সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আসাদুজ্জামান বাচ্চু, সংগঠনের নেতা জাহাঙ্গীর আলম নিশি, সাইফুল ইসলাম শোভন, আলমগীর কবির মিলু, মোস্তফা সারোয়ার প্রমুখ।”
ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান জাবেদ,  
গৃহায়ণ গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন
চট্টগ্রামের জিওসি মেজর জেনারেল সাব্বির আহমেদ এনডিসি পিএসসি বলেছেন, দেশ ও জনগণের সেবায় সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারে সশস্ত্র বাহিনী প্রস্তুত।

শুক্রবার রাতে সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম সেনানিবাসে আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সাব্বির আহমেদ বলেন, সশস্ত্র বাহিনী সম্মিলিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে সর্বস্তরের মানুষের পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ ও সহযোগিতায় আমাদের প্রিয় মাতৃভূমিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। পার্বত্য চট্টগ্রামে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা, উন্নয়নমূলক কার্যক্রম ও আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সেনাবাহিনীর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে আসছে। পাশাপাশি বিজিবি, পুলিশ বাহিনী, আনসার বাহিনীর গুরুত্ব পূর্ণ ভূমিকার প্রশংসা করেন তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, কমডোর কমান্ডিং চট্টগ্রাম কমডোর আখতার হাবিব (এনডি) এনডিসি, পিএসসি, এয়ার অফিসার কমান্ডিং এয়ার কমডোর মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির এনডিসি, পিএসসি

জিওসির বক্তব্য শেষে অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা কেক কাটেন গৃহায়ণ গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। এসময় ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান জাবেদ, সাবেক মেয়র এবিএম মহিউদ্দিনসহ সামরিক বেসামরিক উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s