Personal Notes On Living A Happy, Fulfilled Life [Unofficial]


  • Rapid advances in science and technology in the past 100 years or so have made us more and more materialistic and move away from spiritual truths and life. 
  • A true leader of our time has to show that a life based on spiritual truths and principles (Law of attraction, karma, mindfulness, “the best way to serve God is to serve others”, etc.) can lead to even more success and advancement and more importantly true happiness, fulfillment and peace. 
    • For example, mindfulness/yoga – helps us deal with modern day stress, be focused and reach peak performance, prevent diseases and stay healthy, along with a lot of other benefits. 
  • Happiness and unhappiness result more from how we interpret our conditions than the conditions themselves. Moreover, we can reprogram ourselves so that our interpretations of our conditions and external environment change. 
    • We would like to see A to happen. 
      • –> We notice that A has not happened. 
        • –> “Automatic emotional trigger” that causes us to feel unhappy / pain. 
        • -> We can reprogram our emotional response so that we don’t feel the same next time by being aware and taking charge of the emotional response. 
        • Emotional responses are just like habits. Just as you can form them, you can break them.
          • Example: Some people “learn” to “fear” (emotional response) cockroaches from their parents. In reality, a cockroach is no danger (excluding infections from the dirt they carry around). They can “unlearn” the “fear” of cockroaches. 
        • More
          • Emotional Intelligence
          • Mindfulness 
  • Happy, fulfilled people are more compassionate, more willing to help others, make others feel happy. Unhappy people feel jealous easily. 
  • Consciousness is the most fundamental element in the universe. Consciousness is the reason for why there is a universe. Being internally happy and making others happier is the most important goal in life. Worldly things, possessions, achievements are the tools for becoming happy, not the final goal in themselves.
    • We want that car, because we feel that getting that car would make us happy. We want that job, because we feel that landing on that job would make us happy. The ultimate goal is happiness. Getting the car or the job are the tools through which we can make ourselves happy.

The Secrets Of Happiness – 1

People aim for a goal.

When someone achieves it, he feels blissful – but only for a short period of time. The feeling of bliss fades with time. The achievement becomes normal. He forgets to feel happy for his current position. This makes people who are successful, and even a person of envy in the minds of a lot of people, actually be unhappy themselves.

But this is not ought to be the case. 


We can always go back in our minds to where we were. We can imagine life without some of the blessings, possessions, positions (even our spouse) we have and express gratitude and feel happy.



The secrets of happiness lay hidden in our minds! 

প্রিন্সেস শামিতা তাহসিনকে লেখা খোলা চিঠি – ১

 

শামিতা, প্রিন্সেস, অ্যাই তুমি ডিজাইন নিয়ে ভাবতে পারো, ভাবনাটা আঁকতেও পারো।

Fresh eyes দিয়ে সবকিছু দেখো। ধর, একটা টেবল দেখছ। সবাই যে চোখে টেবল টাকে দেখে সেভাবে দেখলে তুমি নিজে টেবল ডিজাইন করবে কিভাবে? বরং একটা বাচ্চা যে চোখ দিয়ে টেবল টাকে দেখে, বা ধর তুমি মঙ্গল গ্রহে গেছ – সেখানকার একটা অদ্ভুত টেবল যে দৃষ্টি দিয়ে দেখবে সেই দৃষ্টিতে দেখো।

ওয়াও! কেমন অদ্ভুত একটা জিনিস! চারটা পায়ের উপর দাঁড়িয়ে। ওভাল সাইজের। সবাই মিলে এটার উপর খায়? ওভাল না হয়ে রেকটেঙ্গুলার হলে কেমন হত? আরেকটু ছোট হলে? রঙটা কেমন যেন! আরেকটু বাদামি হলে… হুম, দারুন হত।

একটা exercise দেই। একটা E-Book 2.0 ডিজাইন করতে পারবে? স্পেসিফিকেইশান বলে দেই। ফাঙ্কশানালিটি হবে E-Book Reader, Tablet এর মত, কিন্তু বই পড়তে যে সুবিধাগুলো পাওয়া যায় – যেমন ধর কয়েকটা পাতা একসাথে খোলা রাখা, দ্রুত এক পাতা থেকে আরেক পাতায় যাওয়ার সুবিধা, ওজনে হালকা, তারপর ধর কোন পাতায় চাইলে কিছু নোট করে, মার্ক করে রাখা যাবে – ওগুলো থাকতে হবে। চিন্তা করার সময় কোন constraint রেখো না – নতুন কি আনা যায় ভাবো। যেমন ধর, iPhone multi-touch screen introduce করেছে। User Interface এ নতুন আর কি থাকতে পারে ভাবো।
ট্রাই করে দেখো। ডিজাইনের কিন্তু কোন শেষ নাই। একটা ডিজাইন দাঁড় করাও, তারপর ওটাকে আরও ভাল কর, আবার কিছু যোগ কিছু বাদ – এভাবে।

তোমরা ডিজাইনাররা Multi-touch screen ডিজাইন করে বাচ্চাদের কি শিখিয়েছ দেখো! বাচ্চারা ম্যাগাজিনকেও touch screen ভাবছে!

ওয়েব পেইজ ডিজাইনও ট্রাই করতে পারো। ফটোশপ দিয়ে ডিজাইন কর – ভাল লাগে কিনা দেখো। দেখতে ভাল লাগে – এমন সাইটগুলো কেন দেখতে ভাল লাগছে বোঝার চেষ্টা কর।

সবকিছু নিয়ে ভাব। সবকিছু ভালভাবে বোঝার চেষ্টা কর। কম্পিউটার কিভাবে কাজ করে, ব্যাংক কিভাবে কাজ করে, একটা বাড়ি কোন কোন অংশের জন্য সুন্দর লাগছে – কোন কোন অংশ পাল্টে ফেলে আরও সুন্দর করা যায়।

কোন জটিল ব্যাপার বোঝার সবচেয়ে ভাল উপায়

  • জটিল ব্যাপারটাকে ছোট ছোট অংশে ভাগ করে ফেলা।
  • তারপর ছোট ছোট ব্যাপারগুলো আলাদাভাবে বোঝা।
  • এরপর ছোট ছোট অংশগুলো নিয়ে কিভাবে পুরো ব্যাপারটা কাজ করছে তা বোঝা।
  • সবসময় visualize করে বোঝার চেষ্টা কর। তুমি তো জানো আমি কিভাবে visualize করি। 

ধাঁধার সমস্যা বা অঙ্কের সমস্যা নিয়েও ভাবতে পারো।

প্রথম দিন সব বুঝে ফেলবে এমন না। কিন্তু ভাবতে থাকো – কয়েকদিন পর দেখবে আগের চেয়ে অনেক ভাল ভাবছ।

নিউটনের একটা কথা মনে রেখো, “আমার আবিষ্কারের কারণ আমার প্রতিভা নয়। বহু বছরের পরিস্রম ও নিরবিচ্ছিন্ন চিন্তার ফলেই আমি আমাকে সার্থক করেছি, যা যখন আমার মনের সামনে এসেছে, শুধু তারই মীমাংসায় আমি ব্যস্ত থাকতাম। অস্পষ্টতা থেকে ধীরে ধীরে স্পষ্টতার মধ্যে উপস্থিত হয়েছি।”

পড়াশোনা, চিন্তা ভাবনার জন্য আমি কিছু Power Tools ব্যবহার করি। তোমাকে শিখিয়ে দেবো। তোমার মাঝে কত Potential লুকিয়ে ছিল – কখনও খেয়াল করনি – অবাক হয়ে দেখবে। Undergrad বেশি বেশি course নিয়ে তাড়াতাড়ি শেষ করে ফেলতে পারবে!

নামাজ পরো। মন প্রাণ দিয়ে সবার জন্য দোয়া কর।

জীবনের সমস্যা নিয়ে ভেবে কখনও মন খারাপ করবে না। বরং ভাববে তোমার কি কি আছে – তা নিয়ে। আমি আছি না? আরও কত কিছু!

আমরা সবাই happy, satisfied, fulfilled হতে চাই। আসলে আমাদের প্রত্যেকের জীবনের মূল লক্ষ্য হওয়া উচিত – নিজে হ্যাপি হওয়া, আর যতগুলো মানুষকে পারা যায় হ্যাপি করা। আমরা মনে করি, অনেক টাকা রোজগার, চাকরিতে ওই পদ, পছন্দ হওয়া ডায়মন্ড সেট কিংবা ওই পুরষ্কারটাই জীবনের লক্ষ্য হওয়া উচিত। কিন্তু আসলে এগুলো লক্ষ্য না। লক্ষ্য হল – এগুলো অর্জনের মাধ্যমে হ্যাপি হওয়া। পুরষ্কার কিংবা পদ happy, satisfied, fulfilled হওয়ার tools, মূল লক্ষ্য না। মূল লক্ষ্য – happiness, satisfaction, fulfillment

কাজেই যেসব ব্যাপার ভাবলে মন খারাপ হয়, ওগুলো ভেবে মন খারাপ করা মানে নিজে নিজে ইচ্ছা করে জীবনে হেরে যাওয়া। গড তোমাকে যে ব্লেসিংসগুলো দিয়েছেন ওগুলো নিয়ে ভাব – কত ভাল লাগবে!

বড় কোন স্বপ্নকে লক্ষ্য হিসেবে নিয়ে তাতে নিজেকে উজাড় করে দাও – জীবনটা অনেক বেশি অর্থপূর্ণ মনে হবে। স্বপ্নের পথে একটু একটু করে এগোনোকে happy হওয়ার tool হিসেবে ব্যবহার কর।

Happiness এর আরেকটা Secret হল Happiness relative। ধর, একটা কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছ – সামান্য একটু স্বস্তি এলে কি যে ভাল লাগবে! আবার ধর প্রতিটা দিনই অনেক মজার। তখন এত মজার মাঝেও bored feel করবে। অনেক অনেক বেশি exciting কিছু না হলে ভাল লাগবে না! এমন সময়ে happy হওয়ার উপায় হল – কঠিন সময়গুলোর কথা ভাবা। Happiness feel করে তারপর সৃষ্টিকর্তার কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে ভুলো না!

সবচেয়ে বড় যে সত্যটা বলতে চাইছি তা হল – আমাদের “পারিপার্শ্বিক” আমাদের যতটা না happy বা unhappy করে, তার চেয়ে বেশি করে আমরা “পারিপার্শ্বিক দেখে মনে মনে কি ভাবলাম”।

এই ব্যাপারগুলো তুমি নিজের জীবনেও অ্যাপলাই কর, কাছের মানুষদেরও শেখাতে পারো।

তুমি প্রিন্সেস – তোমাকে রোল মডেল হতে হবে – এটা সবসময় মাথায় রেখো।